advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) বিস্তার ঠেকাতে এবার ফেনী জেলাকে লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছে প্রশাসন। বুধবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান।

feni districtফাইল ছবি

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের বিস্তার মোকাবেলায় জনস্বার্থে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে শুধু ওষুধের দোকান ও সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান ব্যতীত অন্য সকল কিছু বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া ব্যাংকগুলোতে লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এবং কাঁচা বাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলা রাখা যাবে সকাল ৮টা থেকে দুপুর পর্যন্ত।

লকডাউন অবস্থায় জেলার বাসিন্দাদের সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, এ সময় একাধিক ব্যক্তির জনসমাগম কোনোভাবেই মেনে নেওয়া হবে না। সকলকে নিজেদের স্বার্থে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির স্টেজ-২ তে আছে। তাই জনগণ যদি সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখে তাহলে জনসংখ্যার ঘনত্বের কারণে আরো খারাপ পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে।

ফেনী জেলা প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে বুধবার বিকেল থেকে মাঠে নামছে সেনাবাহিনী। জেলা শহরের জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করে দায়িত্ব পালন করবেন সেনা সদস্যরা।

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে দেশে এখন পর্যন্ত পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। সংক্রমিত হয়েছেন ৩৯ জন। পরিস্থিতি মোকাবেলায় মাদারীপুরের শিবচর, বান্দরবানের তিন উপজেলাসহ বিভিন্ন এলাকা লকডাউন করেছে প্রশাসন। গতকাল মঙ্গলবার থেকে মাঠে নামানো হয়েছে সেনাবাহিনী।