advertisement
আপনি দেখছেন

অন্য সব রাতের মতো গতকালও রাত দশটা বাজতেই ঘুমিয়ে পড়েন মোশারফ হোসেন ও হোসনে আরা দম্পতি। সাধারণত তারা ভোরেই ঘুম থেকে উঠে পড়েন। কিন্তু আজ সকাল ৮টার পরও তাদের কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যায়নি। অনেক ডাকাডাকির পর এক পর্যায়ে দরজা ভেঙে ফেলেন পাড়া-প্রতিবেশীরা। দেখতে পান, ভেতরে পড়ে আছে স্বামী-স্ত্রী ও দুই মাসের শিশু সন্তানের মরদেহ।

gazipur deadbody

পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করেছে। সঙ্গে পাওয়া গেছে বিষের বোতল। ধারণা করা হচ্ছে, বিষ খেয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটিয়েছেন স্বামী-স্ত্রী দুজনেই। সঙ্গে দুই মাসের শিশুটিকেও বিষ খাইয়ে দেওয়া হয়েছে!

জানা যায়, মোশারফের বাড়ি রংপুরের পীরগাছা উপজেলার ফকিরতরি এলাকায়। স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাশিমপুর থানাধীন পানিশাইল এলাকার একটি বাড়িতে।

এ বিষয়ে কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আকবর আলী খান বলেন, আমরা গিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকা স্বামী মোশারফ হোসেনের মরদেহ উদ্ধার করি। নিচে বিছানায় পড়ে ছিল স্ত্রী হোসনে আরা ও মেয়ে মোহিনীর নিথর দেহ। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ তিনটি শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে, কোনো কারণে মোশারফ স্ত্রী ও সন্তানকে বিষ খাইয়ে নিজে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। তবে তদন্তের পরই নিশ্চিতভাবে সবকিছু জানা যাবে।