advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য বিশেষভাবে প্রস্তুত করা রাজধানীর কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালের আইসোলেশনে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত এক রিকশাচালকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয় বলে জানা গেছে।

kwait maitri hospitalসর্দি-জ্বর নিয়ে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে রিকশাচালকের মৃত্যু

মারা যাওয়া ওই রিকশাচালকের বাড়ি ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে সংবাদটি সামনে আসার পর ৫৮ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির পুরো গ্রামকে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, গতকাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে আসেন স্বজনরা। অবস্থার অবনতি হলে রাত ৯টার দিকে তাকে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের আইসোলেশনে রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে। করোনা পজিটিভ আসলে তার সঙ্গে মিশেছেন এমন সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে।

ওই ব্যক্তির এক ভাতিজা গত ২২ মার্চ ইতালি থেকে দেশে ফিরে আসেন। এই কয়েকদিন তিনি ভাতিজার সঙ্গে বসবাস ও চলাফেরা করেছেন বলে পরিবার সূত্রে জানা যায়, যোগ করেন এই কর্মকর্তা।