advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় যেসব চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন, তাদের পুরস্কৃত করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ মঙ্গলবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

pm hasina adrees nationপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে এইসব চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীর তালিকা তৈরি করতে বলা হয়েছে। তারা বিশেষ ইনস্যুরেন্স পাবেন। কাজ করতে গিয়ে কেউ যদি করোনায় আক্রান্ত হন তাহলে তার উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করবে সরকার। পাশাপাশি ৫ থেকে ১০ লাখ টাকার স্বাস্থ্যবিমা করা হবে। প্রয়োজনে তা পাঁচ গুণ বাড়ানো হবে।

আর যারা এই মুহূর্তে চিকিৎসা না দিয়ে পালিয়ে আছেন তারা কোনো প্রণোদনা পাবেন না জানিয়ে তিনি বলেন, ভবিষ্যতে তারা ডাক্তারি করতে পারবেন কি না, সে ব্যাপারে চিন্তা করা হবে। তারপরও কেউ যদি এখন কাজে ফিরতে চায় তাহলে অন্তত তিন মাস তাকে কাজ করতে হবে। এরপর পুরস্কারের জন্য তার ব্যাপারে চিন্তা করা হবে।

সামনে দেশের জন্য দুঃসময় আসছে জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, চলতি এপ্রিল মাসে ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে হানা দিতে পারে। তাই যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সবাইকে প্রস্তুত থাকতে হবে। এ সময় কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বেশ কিছু নির্দেশনা দেন তিনি।

গতকাল চিকিৎসা না পেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। সে বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, রোগীদের কেন ফিরিয়ে দেয়া হবে? তাদের কেন দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হবে? এমন মৃত্যু যেন আর না ঘটে। যেসব ডাক্তার রোগীদের ফিরিয়ে দিচ্ছে তাদের নাম জানতে চাই।

সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির বাইরে যারা আছেন এবং করোনার কারণে যারা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন, তাদের জন্য রেশনের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে তারা রেশন কার্ড করতে পারবেন। অনেকে অনুদান নিতে চান না। তাদের তালিকা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রয়োজনে তাদের বাড়িতে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিতে হবে।