advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে পুরো টাঙ্গাইল জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে জেলা সার্কিট হাউজে পুলিশ বিভাগ, জেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও জনপ্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে এক বিশেষ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

corona virus newটাঙ্গাইল জেলা লকডাউন

পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত এ আদেশ জারি থাকবে বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে জেলার সীমান্তবর্তী এলাকাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে বিশেষ চেকপোস্ট বসিয়ে লকডাউন করে দেয়া হয়েছে। এখন থেকে অন্য জেলার যানবাহন এ জেলায় ঢুকতে পারবে না এবং টাঙ্গাইলের যানবাহন অন্য কোথাও যেতে পারবে না।

তবে ওষুধ, খাদ্যপণ্যবাহী যানবাহন, পৌরসভার পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও গণমাধ্যমকর্মীরা এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, লকডাউনের মধ্যে শুধু নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলা থাকবে। আর বাকি সব বন্ধ থাকবে।

এই সময়ের মধ্যে অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ির বাইরে বের হতে পারবেন না। এ সময় পরিস্থিতি মোকাবেলায় সবার আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন জেলা প্রশাসক।

এদিকে, করোনার সংক্রমণ রোধে আরো কঠোর অবস্থানে গেছে সরকার। এতদিন কাঁচাবাজার, মুদি দোকান, সুপারশপ খোলা থাকলেও এখন থেকে দিনের নির্দিষ্ট একটি সময় পর্যন্ত এগুলো খোলা থাকবে। এরপরই বন্ধ করে দিতে হবে। নয়তো কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। শুধু ফার্মেসি খোলা থাকবে।

এ ছাড়া সাধারণ জনগণের চলাফেরা নিয়ন্ত্রণ করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর পাশাপাশি সারাদেশে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে রয়েছে নৌবাহিনী। আর আকাশপথে যেকোনো জরুরি সেবার জন্য কাজ করবে বিমানবাহিনী।