advertisement
আপনি দেখছেন

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে আগামী ৫ জুন পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় চলমান এই ছুটি আরো বাড়ানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যতদিন সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসবে ততদিন পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে বলে জানা গেছে।

education ministry logoবাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, দেশব্যাপী চলমান সরকারি সাধারণ ছুটি আর বাড়ানো নাও হতে পারে। তবে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরো বাড়ানো হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখতে বিকল্প উপায়ে পাঠদানের চিন্তা-ভাবনা চলছে।

ইতোপূর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে সেপ্টেম্বরের আগে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে না। সেটিকেই যথাযথ দিক-নির্দেশনা বলে মনে করছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। তাছাড়া এখন ঝুঁকির মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললেও অভিভাবকরা তাদের সন্তানকে পাঠাবেন না।

এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, ছুটি বাড়ানোর বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এক্ষেত্রে আগামীকাল বৃহস্পতিবার কিংবা ৪ জুনের আগে পরবর্তী ঘোষণা দেয়া হতে পারে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম-আল-হোসেন বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার মতো এখনো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি। আগে জীবন, তারপর লেখাপড়া। তাই শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তাছাড়া ছুটি বাড়ানোর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী যে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, সেটাই বাস্তবসম্মত দিক-নির্দেশনা বলে মনে করছি।

sheikh mujib 2020