advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে করোনার সংক্রমণের ‘পিক’ (শীর্ষবিন্দু) কোনটি, এ নিয়ে বিশেষজ্ঞদের মধ্যে মতদ্বৈততা আছে। তবে সেই মতভিন্নতা খুব বেশি আলাদা নয়। কেউ বলছেন সংক্রমণের চূড়ায় আছে দেশ আবার কারো মতামত, চূড়ান্ত সংক্রমণের খুব কাছাকাছি অবস্থান করছি আমরা। বিশ্বখ্যাত অণুজীববিজ্ঞানী ও করোনা পরীক্ষার জন্য গণস্বাস্থ্যের কিট আবিষ্কারক দলের প্রধান ড. বিজন কুমার শীল বলেন, সংক্রমণ যে অবস্থায় আছে এটাই চূড়ান্ত, দ্রুতই তা নামতে শুরু করবে।

dr bijon kumar shil

ড. বিজন বলেন, সব মহামারির ওঠানামার চিত্রটা প্রায় একই। প্রথম দিকে সংক্রমণ এবং মৃত্যু কম থাকে। ধীরে ধীরে বাড়ার পর এই হার একটা জায়গায় এসে একই রকম থাকে বেশ কয়েকদিন। এ সময় রোগীর উপসর্গ বা লক্ষণগুলোও থাকে জটিল। তারপর সংক্রমণের ক্ষমতা হারিয়ে আস্তে অস্তে তা নামতে শুরু করে।

তিনি আরো বলেন- আমার দীর্ঘ গবেষণালব্ধ অভিজ্ঞতা বলছে, বাংলাদেশ এখন সেই চূড়ান্ত সীমাটা অতিক্রম করছে। তাই আরো বেশি সাবধান হতে হবে এখনই। আমরা যদি আর কয়েকটা দিন কষ্ট করতে পারি, স্বাস্থ্যবিধিটা ভালোভাবে পালন করতে পারি তাহলে খুব শিগগিরই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে। সামনে ঈদ আসছে, এটাও একটা দুশ্চিন্তার কারণ। তবে ঈদের আগেই সংক্রমণ নামতে শুরু করবে বলে আমার বিশ্বাস।

affected update 15april

ড. বিজন কুমার শীল বলেন, নমুনা পরীক্ষার হার বাড়ানো হচ্ছে না, এটা নিয়ে অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। আমিও বলি, নমুনা পরীক্ষা বাড়ানো দরকার। তবে মৃত্যুর হারও কিন্তু একটা সূচক, যা দিয়ে করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি বুঝা যায়। মৃত্যুর চিত্রও বলছে, সংক্রমণ দ্রুতই নামতে শুরু করবে।

sheikh mujib 2020