advertisement
আপনি দেখছেন

‘বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০’ বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য ১২ সদস্যের 'ডেল্টা গভর্ন্যান্স কাউন্সিল' গঠন করেছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কাউন্সিলের চেয়ারপার্সন এবং পরিকল্পনা মন্ত্রীকে ভাইস চেয়ারম্যান করা হয়েছে।

pm seikh hasina 1প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা- ফাইল ছবি

বুধবার এ বিষয়ে গেজেট প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। কাউন্সিলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- অর্থমন্ত্রী, কৃষিমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী, ভূমিমন্ত্রী, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী, নৌ পরিবহন মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী এবং পানিসম্পদ মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী।

এছাড়া কাউন্সিলের সদস্য সচিবের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্যকে।

‘বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০’ ‘বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০’ নামেও পরিচিত। ২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর এই শত বছরের মহাপরিকল্পনার অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)। দেশে বন্যা, নদী ভাঙন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, শহর ও গ্রামে পানি সরবরাহ, নদী ব্যবস্থাপনা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থাপনার দীর্ঘমেয়াদী কৌশল হিসেবে এই মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। যার আওতায় আপাতাত ৮০টি প্রকল্প হাতে নেবে সরকার। যা ২০৩০ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন করা হবে। আর এতে ব্যয় করা হবে প্রায় ২৯৭৮ বিলিয়ন টাকা।

delta plan 2100২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ‘বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০’ এর অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)

‘বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০’ বাস্তবায়নে দিকনির্দেশনা, সিদ্ধান্ত গ্রহণ, নীতি নির্ধারণ, কৌশলগত পরামর্শ দেবে নব গঠিত এই 'ডেল্টা গভর্ন্যান্স কাউন্সিল'। এছাড়া শত বছরের এই মহাপরিকল্পনার হালনাগাদকরণ ও বিনিয়োগ পরিকল্পনা প্রণয়ণে দিক নির্দেশনা ও নীতি নির্ধারণ করবে কাউন্সিল।

এ বিষয়ে এক আদেশে বলা হয়, 'ডেল্টা গভর্ন্যান্স কাউন্সিল'কে প্রতি বছর অন্ততপক্ষে একটি সভা করতে হবে। প্রয়োজন অনুসারে কাউন্সিল নতুন সদস্যও অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে। কাউন্সিলকে সাচিবিক সহায়তা দেবে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ।

sheikh mujib 2020