advertisement
আপনি দেখছেন

মোবাইল অ্যাপ বা অনলাইনে কাটা ট্রেনের টিকেট দিয়ে শুধু ক্রেতা নিজেই নির্দিষ্ট গন্তব্য পর্যন্ত ভ্রমণ করতে পারবেন। নিজের নামে টিকেট কিনে অন্যজনের কাছে বিক্রি বা হস্তান্তর করলে ওই ব্যক্তিকে কারাদণ্ড অথবা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে। পাশাপাশি যিনি ওই ব্যাক্তির নিকট থেকে টিকেট কিনবেন বা গ্রহণ করবেন তাকেও টিকেটের ভাড়ার সমপরিমাণ অতিরিক্ত অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

intercity trainট্রেন- ফাইল ছবি

আজ বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব সিদ্ধান্ত জানায় রেলপথ মন্ত্রণালয়।

এতে বলা হয়, ট্রেনে ভ্রমণের জন্য কেউ মোবাইল অ্যাপ বা অনলাইনে সাধারণ টিকেট, রিটার্ন টিকেট অথবা নির্দিষ্ট মেয়াদি টিকেট ক্রয় করলে সেটি আর হস্তান্তর করা যাবে না। এই টিকেট দিয়ে শুধু সেই ব্যক্তিই সুনির্দিষ্ট স্থান পর্যন্ত ভ্রমণ করতে পারবেন, যার নামে টিকেটটি কেনা হয়েছে ও যে স্থান পর্যন্ত ভ্রমণের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

কেউ যদি নিজের নামে ট্রেনের টিকেট কিনে অন্য কারো কাছে বিক্রি বা হস্তান্তর করে, তাহলে তাকে তিন মাসের জন্য কারাদণ্ড অথবা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে। পাশপাশি সে ব্যক্তি টিকেটটি কিনবেন বা গ্রহণ করবেন, তাকেও টিকেটের একবার ভ্রমণের সমপরিমাণ অতিরিক্ত অর্থে দণ্ডিত করা হবে।

rail ministryরেলপথ মন্ত্রণালয়

তাই বিজ্ঞপ্তিতে মোবাইল অ্যাপ বা অনলাইনে কেনা নিজের টিকেট দিয়ে নিজেই ভ্রমণ করতে এবং অন্যের নামে কেনা টিকেট দিয়ে রেলভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকতে যাত্রীসাধারণের প্রতি অনুরোধ জানায় বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. শরিফুল আলম বলেন, ট্রেনের টিকেট নিয়ে কালোবাজারি বন্ধ করতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যিনি ভ্রমণ করবেন তার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়েই টিকেট কাটতে হবে। এবার সেটা আপন ভাই হলেও একই নিয়ম মানতে হবে।

তিনি আরো বলেন, যদি কারো বয়স ১৮ বছরের নিচে হয়, তাহলে পরিবারের সদস্যদের জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর ব্যবহার করতে পারবে। তবে জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর অন্যজনের দিলেও মোবাইল নম্বর ভ্রমণকারী ব্যক্তিরই দিতে হবে। এছাড়া একজনের পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়ে সর্বোচ্চ ৪টি টিকেট কেনা যাবে।

sheikh mujib 2020