advertisement
আপনি দেখছেন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক স্কুলগুলোও দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ আছে। এর ফলে ধুলাবালি জমে শিক্ষাদানের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে স্কুলগুলো। শিগগিরই স্কুল খোলার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে পরিচ্ছন্ন করে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা এবং ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরি করতে ১২৮ কোটি টাকার একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

primary ministry

প্রকল্পের নাম ‘বাংলাদেশ কোভিড-১৯ স্কুল সেক্টর রেসপন্স’। এই প্রকল্পের আওতায় স্কুলগুলোকে সম্পূর্ণভাবে জীবাণুমুক্ত করা হবে। বাথরুম, কমনরুমসহ সব জায়গা অপরিষ্কার-অপরিচ্ছন্ন হয়ে গেছে। এগুলোকে আগের চেহারায় ফিরিয়ে আনা হবে। এছাড়া আনন্দ সহকারে শিক্ষা দানের জন্য ডিজিটার কন্টেন্ট তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। প্রকল্পের অর্থ ব্যয় করা হবে সেখানেও। মোটকথা, নতুন রূপে স্কুল চালু করতে সরকার এই প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) রতন চন্দ্র পণ্ডিত বলেন, আমরা আমাদের শিশু শিক্ষার্থীদেরকে নিয়ে কোনো প্রকার ঝুঁকি নিতে চাইনা। তাই স্কুল চালুর আগে সেগুলোকে সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত করা হবে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও হাইজিনের ব্যাপারটাকে সরকার গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করছে। করোনার কারণে এমনিতেই দীর্ঘ গ্যাপ তৈরি হয়েছে, স্কুল খোলার পর যেনো কেনো শিক্ষার্থীকে সমস্যায় পড়তে না হয়, সে জন্য আমরা সচেষ্ট।

primary school student

তিনি আরো বলেন, ১ম থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত সব বিষয়ের ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরি করা হবে। সেখানে থাকবে ছবি ও সুন্দর সুন্দর ভিডিও। শিক্ষার্থীরা যাতে আনন্দ নিয়ে পড়তে পারে সে জন্যই এমন ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে ওই কন্টেন্ট শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরা হবে।

sheikh mujib 2020