advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে অবশেষে অ্যান্টিজেন টেস্টের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। দুদিন আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এই ঘোষণা দিয়েছেন। শিগগিরই ঘোষণার বাস্তবায়ন শুরু হবে। তবে অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হবে শুধু সরকারি হাসপাতাল ও ল্যাবগুলোতে। এই টেস্টের মাধ্যমে করোনাভাইরাস আছে কিনা, তা জানতে সময় লাগবে মাত্র ১৫ মিনিট।

antigen test

দেশের করোনা পরীক্ষায় এই পদ্ধতিকে একটা ইউটার্ন হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। যেখানে অনেক ক্ষেত্রে ১ সপ্তাহ অপেক্ষা করেও নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যেতো না, সেখানে মাত্র ১৫ মিনিটে রেজাল্ট জানতে পারাটা অসামান্য অগ্রগতি। তাছাড়া এর খরচও অনেক কম। এই পদ্ধতিকে টেস্ট শুরু হলে দেশের করোনা পরিস্থিতির সার্বিক চিত্র জানা যাবে।

অ্যান্টিজেন টেস্ট কি, সেটা জানা দরকার। এই পদ্ধতিতে মানুষের শরীর থেকে রক্ত নিয়ে সেখান থেকে প্লাজমা আলাদা করা হয়। তারপর একটি কিটের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয়, ওই প্লাজমায় অ্যান্টিজেন আছে কিনা। যদি থাকে, তাহলে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। মাত্র ১০ থেকে ১৫ মিনিটেই এই কাজটা করা সম্ভব।

bd update 8may

অ্যান্টিজেন টেস্টের সুবিধা আরো আছে। আরটি-পিসিআর টেস্টের পদ্ধতি হলো নাক থেকে সোয়াব নিয়ে এটা করতে হয়। এক্ষেত্রে অনেক সময় ঠিকভাবে লালাটা নেওয়া হয় না। তাতে করে ভুলভাল রিপোর্ট আসার ঘটনাও ঘটেছে। আর অ্যান্টিজেন যেহেতু রক্ত থেকে করা হয়, তাই ভুল হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। সবচেয়ে বড় কথা, দ্রুত হওয়ার কারণে এই টেস্টের মাধ্যমে আগের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি করোনা টেস্ট করা সম্ভব হবে।

sheikh mujib 2020