advertisement
আপনি দেখছেন

দীর্ঘ আট মাস বন্ধ থাকার পর অবশেষে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালু হতে যাচ্ছে। বিশেষ ব্যবস্থায় আগামী ২৮ অক্টোবর থেকে ফ্লাইট চালু হচ্ছে। এবার সড়ক ও রেলপথ খুলে দিতে ভারতকে অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ।

momen with indian hcনবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। বুধবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায়।

আজ বুধবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামীর সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এ অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। পরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

সাধারণ মানুষের কথা বিবেচনা করে এই অনুরোধ করা হয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারতীয় হাইকমিশনারকে বলেছি, ল্যান্ড এবং ট্রেন চালু করা দরকার। কারণ আমরা সাধারণ মানুষের দেশ, অধিকাংশ লোকই গাড়িতে বা ট্রেনে সফর করে। ধনী ব্যক্তিরা যায় বিমানে করে। তাই সড়ক পথ চালু করলে বেশি খুশি হবো।

তিনি বলেন, ভারতকে এ বিষয়ে সবসময়ই প্রস্তাব দিয়েছি। কিন্তু কবে নাগাদ চালু হবে তা এখনও জানায়নি। কারণ করোনার প্রাদুর্ভাব নিয়ে তারা খুবই শঙ্কিত। ইতোমধ্যে সেখানে অসংখ্য লোক ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

hasina modi 2019প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, পুরনো ছবি

আগামী ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক ভার্চুয়াল বৈঠকে মিলিত হবেন। তবে দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবুও ভারতের পক্ষ থেকে ১৬ ডিসেম্বর বৈঠক অনুষ্ঠানের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, আগামী ১৬ ও ১৭ ডিসেম্বর উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে। অবশ্য ভারতের পক্ষ থেকে ১৬ ডিসেম্বরের কথা বলা হয়েছে, কিন্তু ওইদিন আমাদের অনেক ব্যস্ততা থাকে। তাই বিষয়টি চূড়ান্ত হয়নি।

sheikh mujib 2020