advertisement
আপনি দেখছেন

আগামীতে বাংলাদেশের হাই-টেক পার্কগুলোতে বিনিয়োগসহ আইসিটি খাতে যৌথভাবে ভারত কাজ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। আজ মঙ্গলবার ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামীর সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ict minister polokআইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে ভারতীয় হাইকমিশনার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো দৃঢ় করা এবং আইসিটি সেক্টরসহ অন্যান্য খাতে বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্ব বাড়ানোর বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। অদূর ভবিষ্যতে উভয় দেশের সম্পর্ক আরো জোরদার হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে পৌঁছান বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী। সেখানে তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের অসামান্য অবদান কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

indian hc vikram kumar doraiswamyভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী

তিনি বলেন, বর্তমানে দুই দেশের বাণিজ্য ঘাটতি কমেছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে আইসিটি সেক্টরে ভারতের বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের ১২টি জেলায় হাই-টেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পে ভারত সরকার অর্থায়ন করছে এবং দুই দেশের আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপনের লক্ষ্যে আরেকটি প্রকল্প চূড়ান্ত পর্যায়ে।

বাংলাদেশ-ভারত আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের ৬টি স্থানে হাই-টেক পার্কের বিদ্যমান অবকাঠামোতে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করে মানবসম্পদ উন্নয়ন করার ব্যাপারেও জুনাইদ আহমেদ পলক এবং ভারতীয় হাইকমিশনার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ সময় সেখানে আরো উপস্থিত ছিলেন- আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগমসহ প্রমুখ।

sheikh mujib 2020