advertisement
আপনি দেখছেন

করোনার মহামারির সংক্রমণ ঠেকাতে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় ধাপে ধাপে বাড়ানো এই ছুটি আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়ার কথা।

englsih medium school dhaka 1স্কুলের শ্রেণিকক্ষ- ফাইল ছবি

এরইমধ্যে বিভিন্ন মহল থেকে স্কুল খুলে দেয়ার দাবি উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষে ক্লাসসহ হল খুলে দেয়ার দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে আজ মঙ্গলবার একটি অনলাইন জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে বলা হয়, স্কুল খোলার পক্ষে মত দিয়েছে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার ৬০ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ।

নাগরিক প্ল্যাটফর্মের জরিপ বলছে, ৫২ শতাংশের আশঙ্কা, স্কুল খোলার পর করোনার সংক্রমণ বাড়তে পারে। এ কারণে অভিভাবকদের প্রায় ৫৫ শতাংশ মনে করেন, সন্তানকে স্কুলে পাঠানো এখনো নিরাপদ নয়।

‘অবশেষে স্কুল খুলছে: আমরা কতখানি প্রস্তুত?’ ভার্চ্যুয়াল সংলাপে জানানো হয়, ৫৪ দশমিক ৭ শতাংশ অভিভাবকের মত, স্কুল স্বাস্থ্য নির্দেশিকা মেনে চলতে পারবে না সন্তানরা। বাকি ৪৫ দশমিক ৩০ শতাংশ অভিভাবক সন্তানকে স্কুলে পাঠাতে চান।

school is openজরিপের সংলাপ

এ ছাড়া স্কুলে যেতে নিরাপদ বোধ করছেন ৬৮ শতাংশ শিক্ষক। এর বিপরীতে মাত্র ৩২ শতাংশ শিক্ষক এখনো স্কুলে যেতে নিরাপদ মনে করছেন না।

গত ১৭ থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি অনলাইনে জরিপটি পরিচালনা করে নাগরিক প্ল্যাটফর্ম। এতে ১ হাজার ৯৬০ জন অংশ নিয়েছে। যার মধ্যে ৫৭৬ জন অভিভাবক ও ৩৭০ জন শিক্ষক ছিলেন। বাকি ১ হাজার ১৪ জন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

জরিপের ফলাফল তুলে ধরেন সিপিডির যুগ্ম পরিচালক অভ্র ভট্টাচার্য। তাতে দেখা যায়, প্রায় ৮৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল স্বাস্থ্য নির্দেশিকার বিষয়ে জানেন। এ ছাড়া স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অতিরিক্ত ফি দিতে আগ্রহী নন ৬৭ শতাংশ অভিভাবক।

sheikh mujib 2020