advertisement
আপনি দেখছেন

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা হলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আজ বৃহস্পতিবার মরণঘাতী করোনাভাইরাসের টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

muhibul hasan nowfel state ministerটিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল

এর আগে দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন তিনি।

নওফেল বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার বিষয়ে মন্ত্রী পরিষদে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিষয়টি দেখভাল করতে এরই মধ্যে পুলিশ প্রশাসনকে নির্দশেনা দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি আজ বৃহস্পতিবার থেকেই মনিটরিং করা হবে।

সরকারের নির্দেশনা না মেনে যারা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ সময় দেশের কওমী মাদ্রাসা প্রসঙ্গে শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, সরকার কওমী শিক্ষার সর্বোচ্চ ডিগ্রিকে মাস্টার্সের সমমর্যাদার সম্মান দিয়েছে। এর পরও যদি তারা বিশৃঙ্খলা করে, তাহলে বিষয়টি পুনরায় বিবেচনা করে দেখতে হবে।

casul leave in educational institutionsকরোনার মহামারির কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ফাইল ছবি

প্রসঙ্গত, এদিন নিজে ভ্যাকসিন নিয়ে চট্টগ্রামে করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. সাহেনা আখতার প্রমুখ।