advertisement
আপনি দেখছেন

মুসলিম নেতাদের অনৈক্যের ফলে শহিদ হচ্ছে ফিলিস্তিনের মুসলমানরা। এমতাবস্থায় যার যার সাধ্যমতো ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন মুফতি গিয়াস উদ্দিন তাহেরি। বৃহস্পতিবার রাতে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এক ভিডিও বার্তায় এ কথা বলেন তিনি।

mufti taheri

তিনি বলেন, মসজিদে আকসা নির্মাণ করেছেন হযরত সুলায়মান (আ.)। আর এ মসজিদ মুসলমানদের হাতে আসে হযরত ওমর (রা.) এর সময়ে। ইসলামের স্মৃতিবিজড়িত মসজিদে আকসায় আজ মুসলমানরা নামাজ পড়তে পারছে না, তাদের পাখির মত গুলি করে মারছে। এমন অবস্থায় মুসলমানদের চুপ করে থাকার সময় নেই।

মুফতি তাহেরি বলেন, মুসলমানদের এখন আর বিচ্ছিন্ন থাকলে চলবে না। বিচ্ছিন্ন থাকার দিন শেষ হয়ে গেছে। এখন সবাইকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মসজিদে আকসা প্রতিরক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে। মুসলিম নেতারা এ ব্যাপারে করণীয় সম্পর্কে উদ্যোগ নেবে। আর আমরা যারা সাধারণ মানুষ আছি, মহান আল্লাহর দরবারে ফিলিস্তিনি ভাইদের জন্য দোয়া করব।

তাহেরি বলেন, মসজিদে আকসার সঠিক ইতিহাস না জানার কারণেই আজ মুসলমানরা মসজিদে আকসার গুরুত্ব উপলদ্ধি করতে পারছে না। অথচ এ মসজিদের সঙ্গে রাসুল (সা.) এর মেরাজের স্মৃতি জড়িয়ে আছে। শুধু তাই নয়, হযরত ঈসা (আ.) ও দাজ্জাল এখানেই আসবেন। সুতরাং মুসলিম জীবনে মসজিদে আকসার গুরুত্ব অপরিসীম।

যেভাবে আমার মুসলিম ভাইদের ওপর গুলি বর্ষণ করেছে, তা দেখে কোনো সুস্থ মানুষ নিজেকে ঠিক রাখতে পারবে না। আমরা আল্লাহর কাছে দোয়া করছি, হে আল্লাহ! আপনি ফিলিস্তিনিদের বাঁচান। মসজিদে আকসাকে সন্ত্রাসী ইহুদির কবল থেকে মুসলমানদের জিম্মায় এনে দেন, যোগ করেন মুফতি গিয়াস উদ্দিন তাহেরি।