advertisement
আপনি দেখছেন

ভ্যাকসিন সংকটের কারণে দেশে বন্ধ আছে টিকাদান কর্মসূচি। তবে চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের উপহার দেওয়া কিছু টিকা বর্তমানে মজুদ আছে। এ নিয়েই আবারো শুরু হচ্ছে গণ-টিকাদান কার্যক্রম। আগামী ১৯ জুন থেকে এই কার্যক্রম শুরু হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

health minister jahid malek 13স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক, ফাইল ছবি

সম্প্রতি প্রয়াত মা ফৌজিয়া মালেকের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়ে আজ সোমবার বিকেলে এ তথ্য জানান তিনি। চীন থেকে উপহার হিসেবে দেওয়া সিনোফার্ম এবং যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া ফাইজারের টিকা দিয়ে প্রথম ডোজ দেওয়া শুরু হবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

যে ভ্যাকসিন পাওয়া গেছে, তা দিয়েই টিকাদান কর্মসূচি আবার চালু হবে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে আবার করোনার সংক্রমণ বেড়ে গেছে। তাই সবাইকে এখন থেকেই আবারো সচেতন হতে হবে। হাসপাতালগুলোতে শয্যা সংখ্যা কম। সুতরাং করোনার সংক্রমণ বেশি বেড়ে গেলে সেবাও ব্যাহত হবে। তাই প্রতিরোধের ওপর সবাই জোর দিতে হবে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

chinese vacc in dhakaচীনের পাঠানো করোনার টিকা, ফাইল ছবি

এ সময় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক আরো বলেন, হাসপাতালের ছবি দেখিয়ে করোনা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না। বরং করোনার উৎপত্তিস্থলের ছবি টেলিভিশনে প্রচার করতে হবে।

উল্লেখ্য, দুই দফায় উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে ১১ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দিয়েছে চীন। অন্যদিকে, যুক্তরাষ্ট্র সরকার ১ লাখ ৬২০ ডোজ ফাইজারের টিকা উপহার দিয়েছে। অর্থাৎ সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে সরকারের কাছে ১২ লাখ ৬২০ ডোজ টিকা রয়েছে।