advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে মরণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা এ পর্যন্ত দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এর আগে সর্বোচ্চ মৃত্যু ছিল ২১২ জন। আগের ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছিল ১৮৫ জনের। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৬ হাজার ৪১৯। একই সময়ে দেশে আরো ১১ হাজার ৮৭৪ জনকে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। যা গতকালের তুলনায় অনেক বেশি এবং এ পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। আগের ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছিল ৮ হাজার ৭৭২ জন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ লাখ ২১ হাজার ১৮৯। 

cv sample test boothপ্রতিদিনই দেশে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু, বাংলাদেশে নমুনা সংগ্রহ

আজ রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোভিড-১৯ সক্রান্ত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। দেশে করোনা শনাক্তের পর থেকে প্রতিদিনই পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টার আপডেট জানিয়েছে আসছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৩৯ হাজার ৮৬০টি। আগের নমুনাসহ পরীক্ষা করা হয়েছে ৪০ হাজার ১৫টি। এর মধ্যে আরো ১১ হাজার ৮৭৪ জনকে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। যা গতকালের তুলনায় অনেকটা বেশি এবং এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। আগের ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছিল ৮ হাজার ৭৭২ জন। এর আগে গত ৮ জুলাই সর্বোচ্চ ১১ হাজার ৬৫১ জন শনাক্ত হয়েছিল। এ নিয়ে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১০ লাখ ২১ হাজার ১৮৯ জন। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৬৯ লাখ ৭১ হাজার ১৬৭টি। 

coronaকরোনাভাইরাসের প্রতীকী ছবি

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে আরো ২৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা গতকালের তুলনায় অনেকটা বেশি এবং এ পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। আগের ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছিল ১৮৫ জনের। এর আগে গত ৯ জুলাই ২১২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। যা ছিল আজকের আগ পর্যন্ত একদিনে মৃত্যুর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ।  এ নিয়ে দেশে মোট ১৬ হাজার ৪১৯ জনের মৃত্যু হলো। ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ১৩৩ জন পুরুষ এবং ৯৭ জন নারী। এর মধ্যে ১৯ জন বাড়িতে এবং বাকিরা হাসপাতালে মারা গেছেন।

২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ৬৭ শতাংশ। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ। 

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৩৬২ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ৭৪ জন ৫০১ জন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৫৬ জন। এ ছাড়া খুলনায় ৬৬, চট্টগ্রামে ৩৯, রাজশাহীতে ২৬, বরিশালে ৮, সিলেটে ৮, রংপুরে ২২ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ৫ জন মারা গেছেন।