advertisement
আপনি দেখছেন

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান বলেছেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ওয়াজ-মাহফিলের মধ্যে অনেক সময় বিভ্রান্তিকর এবং অপ্রাসঙ্গিক কথা বলা হয়। এসব বন্ধ করতে হবে। মাহফিলের স্টেজে কিংবা মসজিদের মিম্বরে বসে কোরআন-হাদিসের বাইরে কোনো ধরনের উস্কানিমূলক কথা বলা যাবে না।

faridul haque state minister religiousমো. ফরিদুল হক খান

আজ সোমবার (১১ অক্টোবর) ভোলা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান।

তিনি বলেন, যে কোনো মূল্যে সমাজে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে। কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে এমন কোনো বক্তব্য আসা উচিত নয়, যা সম্প্রীতি বিনষ্ট করে। এই বার্তা শহর থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত ছড়িয়ে দিতে হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংবিধানে ধর্মনিরপেক্ষতার মূলনীতি যুক্ত করেছিলেন। তিনি সেটা করেছিলেন একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বিনির্মাণের জন্য। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বিনির্মাণের চেষ্টা করে যাচ্ছেন এবং তিনি সেটা করতে সক্ষমও হয়েছে।

‘তাই এই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি যেন কেউ নষ্ট না করতে পারে, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।’ বলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান।