advertisement
আপনি দেখছেন

সরকার দেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর তথা সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের জন্য বছরব্যাপী অনুষ্ঠান করার উদ্যোগ নিয়েছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ এর মহামারির কারণে তার অনেক আয়োজনই সংক্ষিপ্ত পরিসরে করতে হয়েছে। আবার অনেক কর্মসূচি পালনই করা সম্ভব হয়নি লকডাউন চলার কারণে।

bangladesh 50 years independenceস্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে এভাবেই সাজানো হয় জাতীয় সংসদ ভবন

তাই এবার সেই আয়োজনের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে আজ সোমবার, ২২ নভেম্বর, এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এদিন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মন্ত্রিসভা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অপরদিকে, সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি জানান, আগামী বছরের, ২০২২ সাল, মার্চ পর্যন্ত স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। অবশ্য বৈঠকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে ঘোষিত মুজিববর্ষের কর্মসূচির মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।

cabinet secretary press conferenceব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম

এদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চদশ অধিবেশনে মহামান্য রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়াও এদিন অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, আগামী বছর, ২০২২ সাল, প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণে বিষয়বস্তু থাকবে স্বাধীনতার ৫০ বছর। জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে এর আগে ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি।