advertisement
আপনি পড়ছেন

নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত এবং গণপরিবহনে ‘হাফ ভাড়া’র দাবিতে আজও রাজপথ অবরোধ করেছেন ঢাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। বোববার রাজধানীর ধানমণ্ডি-২৭ এ সড়কে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দিয়েছে তারা। সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থীর মৃত্যুর প্রতিবাদে শুরু হওয়া আন্দোলন চলছে গত কয়েক দিন ধরে।

safe road movement again 2ফের নিরাপদ সড়ক আন্দোলন

এদিন ধানমণ্ডির রাপা প্লাজার সামনে ৩ রাস্তার মোড়ে অবস্থান নিয়ে আন্দোলনকারীদের একদল গাড়ির লাইসেন্স পরীক্ষা করেন। আরেক দল নাঈম হত্যার বিচার ও হাফ পাসের দাবিতে টানা স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় ‘হাফ পাস না দিলে, বাস দেখি কেমনে চলে’, ‘আমাদের দাবি একটাই, নিরাপদ সড়ক চাই’, ‘আমার ভাই মরল কেন, প্রশাসন জবাব চাই’সহ নানা স্লোগান দেন তারা। এ ছাড়া অনেক শিক্ষার্থীর হাতে তাদের দাবি সম্বলিত বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাকার্ড দেখা যায়।

আন্দোলনকারীরা হ্যান্ডমাইকে ঘোষণা করেন, ২০১৮ সালে নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে যে ৯ দফা দাবি পেশ করা হয়, তা আজও বাস্তবায়ন করা হয়নি। সেসব দাবি পূর্ণাঙ্গভাবে দ্রুত বাস্তবায়ন করতে হবে। সেইসঙ্গে শিক্ষার্থীদের হাফ পাস নিশ্চিত করতে অবিলম্বে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।

students block dhanmondi 27 innerধানমণ্ডি-২৭ অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা

আন্দোলনকারীদের একজন বলেন, তাদের দাবি পূর্ণাঙ্গভাবে আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকবেন তারা। আরেকজন বলেন, বাসে হাফ ভাড়া নেয় না, নারী শিক্ষার্থীদের তুলতে চায় না। কোনোভাবে উঠতে পারলে চালক ও হেলপররা অসদাচরণ করে। এভাবে চলতে পারে না।

জানা গেছে, ধানমণ্ডির আন্দোলনে ওই এলাকার আশপাশের বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানের কয়েক শ শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে- লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, মোহাম্মদপুর সরকারি কলেজ, নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজ, মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজ, রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ, মুন্সি আব্দুর রউফ কলেজ, সিটি কলেজ, ঢাকা কলেজ ও তেজগাঁও কলেজ।

নিউমার্কেট-মিরপুর সড়কে বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী অবস্থান নেয়ায় গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে ব্যস্ততম সড়কটিতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়, যাত্রীরা পড়েন চরম দুর্ভোগে।

এদিকে, শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল, বিএনপি। আজ রোববার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের এক বিক্ষোভে এ ঘোষণা দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ সময় তিনি বলেন, পড়ালেখার খরচ অনেক বেড়ে যাওয়ায় আজকে শিক্ষার্থীরা বাস ভাড়া কমানোর দাবিতে রাস্তায় নেমেছে। মধ্যবিত্ত ও নিম্ন পরিবারগুলো তাদের সন্তানদের লেখাপড়ার ব্যয় যোগাতে হিমশিম খাচ্ছে। এর মধ্যে গণপরিবহনের ভাড়া ফের বাড়িয়ে তাদের চরম বিপর্যয়ের মুখে ঠেলে দিয়েছে সরকার।

এর আগে ২০১৮ সালে ঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের আন্দোলন দানা বাঁধে রাজধানীসহ সারাদেশে। পরে আন্দোলনের মুখে বিদ্যমান সড়ক আইন সংশোধন করতে বাধ্য হয় সরকার। যদিও সেটা কার্যকর করা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।