advertisement
আপনি পড়ছেন

করোনাভাইরাসের সবশেষ ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ নিয়ে নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। বাংলাদেশেও এই ভ্যারিয়েন্টের প্রবেশ ঠেকাতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। যে দেশ থেকে উদ্বেগজনক ধরনটির উৎপত্তি, সেই দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে সকল প্রকার যোগাযোগ বন্ধ করা হয়েছে। এবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জারি করা হয়েছে বিশেষ সতর্কতা।

bangladesh risky health departmentস্বাস্থ্য অধিদপ্তর

আজ রোববার (২৮ নভেম্বর) করোনাভাইরাসের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে আয়োজিত বুলেটিন থেকে এই তথ্য জানানো হয়। অধিদপ্তরের মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, ওমিক্রন নিয়ে বিভিন্ন দেশ প্রতিকার ও প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে। আমাদের দেশেও বিমান, সমুদ্র ও স্থলবন্দরসহ সব পোর্ট অব এন্ট্রিতে সতর্কতা জারি করা হলো।

ডা. নাজমুল ইসলাম আরও বলেন, আত্মতুষ্টিতে ভোগার কোনো সুযোগ নেই। করোনা শেষ হয়ে যায়নি, যে কোনো মুহূর্তে এটা মাথাছাড়া দিয়ে উঠতে পারে। ঘরে এবং বাইরে স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা কমে গেছে। তাই এখনই সাবধান হতে হবে। অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে। নিয়মিত বিরতিতে ২০ সেকেন্ড বা তার বেশি সময় ধরে সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

এদিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট অনেকবার মিউটেশন করেছে। এ কারণে নতুন করে সংক্রমণের হার বেড়ে গেছে। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রায় সবকটি প্রদেশে দ্রুত সংক্রমণ ছড়াচ্ছে এই ভ্যারিয়েন্ট। এছাড়া বসতোয়ানা, ইসরায়েল ও হংকংয়ে নতুন ধরনটির সন্ধান মিলেছে। ইউরোপের দেশ বেলজিয়ামেও কয়েকজনের শরীরে শনাক্ত হয়েছে ধরনটি।