advertisement
আপনি পড়ছেন

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া লিভার সিরোসিসে ভুগছেন বলে জানিয়েছে তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড। আজ রোববার সন্ধ্যায় তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে করা সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। এই সমস্যার দ্রুত সমাধান না হওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর ঝুঁকিতে রয়েছেন তিনি। তাই যত দ্রুত সম্ভব তাকে ইউরোপ-আমেরিকায় পাঠানোর সুপারিশ করেছেন চিকিৎসকরা।

khaleda zias medical boardখালেদা জিয়ার চিকিৎসক বোর্ড

খালেদা জিয়ার লিভারে তিন বার রক্তক্ষরণ হয়েছে উল্লেখ করে মেডিকেল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক ডা. ফখরুদ্দিন মোহাম্মদ সিদ্দিকী বলেন, বর্তমানে তার রক্তক্ষরণ বন্ধ আছে। তবে আবারো রক্তক্ষণের ঝুঁকি রয়েছে, সেটা হলে তা সামাল দেয়া কঠিন হবে। ব্লিডিং হয়ে মৃত্যুঝুঁকি আরো বেড়ে যাবে।

এই রোগের চিকিৎসার প্রযুক্তি বাংলাদেশ তো নয়ই, ভারতীয় উপমহাদেশেও নেই বলে জানান ডা. এফ এম সিদ্দিকী। তিনি জানান, এমন চিকিৎসা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির সুনির্দিষ্ট কিছু সেন্টারে সম্ভব। এখনই সেই চিকিৎসা করা না গেলে এবং তার অবস্থা খারাপ হলে বিদেশে নেয়া সম্ভব নাও হতে পারে।

khaleda zia in hospital 8হাসপাতালে খালেদা জিয়া, ফাইল ছবি

খালেদা জিয়াকে সাধ্যের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে জানিয়ে রোগ ও তার চিকিৎসার প্রাথমিক বর্ণনা দেন মেডিকেল বোর্ডের প্রধান। তিনি জানান, তার পেট থেকে চাকা চাকা রক্ত গেছে। রক্ত দিয়ে কিছু ওষুধ দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়া সম্ভব হয়েছে। এই ধরনের রোগীকে বারবার রক্ত দেয়া সম্ভব নয়।

ইন্টারন্যাশনাল গ্যাস্ট্রো অ্যানালিস্ট চিকিৎসক আরেফিন সিদ্দিক জানান, খালেদা জিয়ার চিকিৎসাটা হাইলি টেকনিক্যাল কাজ। বাংলাদেশে ‘টিপস’ করা কোনো রোগী আমরা দেখি না, যার দুই থেকে তিনবার এটা করা হয়েছে।

খালেদা জিয়া গত ১৩ নভেম্বর থেকে ঢাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে সিসিইউতে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। তিনি ‘জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে’ রয়েছেন দাবি করে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়ার দাবি জানিয়ে আসছে দল ও পরিবার। সরকারের অনুমতি না পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে রাষ্ট্রপতির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির সংসদ সদস্যরা। একই দাবিতে দলটির সাবেক সংসদ সদস্যরাসহ ৮ দিনের কর্মসূচিও ঘোষণা করেছে বিএনপি।