advertisement
আপনি পড়ছেন

করোনা মহামারিতে মৃতদের দাফন-সৎকারসহ অক্সিজেন, প্লাজমা, অ্যাম্বুলেন্স, টেলি মেডিসিন সার্পোট, খাদ্য, কর্ম ও শিক্ষা সহায়তা দিয়ে আসছে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ‘টিম খোরশেদ’। এমন মহৎ কাজের জন্য এবার ‘এশিয়া বুক অব রেকর্ড’ স্বীকৃতি পেয়েছে ঢাকার অদূরের জনপ্রিয় এই প্রয়াস।

tim khorshedবিশ্বস্বীকৃতি পেল টিম খোরশেদ

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রতিবেশী ভারতের হায়দ্রাবাদের ‘এশিয়া বুক অব রেকর্ড’ থেকে স্বীকৃতির সনদ, মেডেল ও স্যুভেনির পাঠানো হয় কুরিয়ারযোগে। সেটি হাতে পাওয়ার কথা জানিয়েছে টিম খোরশেদ। বিষয়টি নিয়ে আজ শুক্রবার গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন টিম লিডার মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

এ সময় স্বীকৃতির জন্য তার দলের পক্ষ থেকে মহান আল্লাহর কাছে শোকরিয়া জানান আলোচিত কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। এই অর্জনকে তার টিমের সকল সদস্যের প্রতি উৎসর্গ করে তিনি বলেন, এটি মহান আল্লাহর রহমত এবং স্বেচ্ছাসেবকদের ত্যাগের ফসল।

tim khorshedবিশ্বস্বীকৃতি পেল টিম খোরশেদ

টিম খোরশেদের প্রধান সমন্বয়ক বলেন, স্বীকৃতির জন্য নয়, মানুষের জন্য আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে চাই আমরা। নতুন করে করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত রয়েছি আমরা। চলমান মহামারি শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমরা আমাদের কার্যক্রম নিয়ে সক্রিয় থাকব, ইনশাআল্লাহ।

এর আগে টিম খোরশেদের কাজের প্রশংসা করেছেন বিভিন্ন দেশের বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য, এমপি। এবার দেশের গণ্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি মিলল তাদের ঝুঁড়িতে। ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্ত হলে ৯ র্মাচ থেকে কাজ শুরু করেছিল টিম খোরশেদ, যা এখনো অব্যাহত রয়েছে।