advertisement
আপনি পড়ছেন

জাতীয় প্রেসক্লাবে প্রকাশ্যে শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন মামুন নামের এক তরুণ। কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেছিলেন, দ্বিতীয় বিয়ে করায় প্রথম স্ত্রী চলে গেছেন বাপের বাড়ি। আবার দ্বিতীয় স্ত্রীও টাকা-পয়সা নিয়ে পালিয়ে গেছেন অন্য ছেলের সঙ্গে। কিন্তু পরে যোগাযোগ করে জানা গেছে, নেশার টাকা না পাওয়াতেই এসব নাটক করেছেন তিনি।

mamun 1আত্মহত্যার হুমকি দিচ্ছে মামুন

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় গাজীপুরের কাপাশিয়া এলাকার যুবক মামুন। সেখানে উপস্থিত জনতা ও পুলিশ সদস্যরা ছুটে গিয়ে যুবককে বাধা দেয়। তাকে উদ্ধার করে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। মামুন জানান, আমার দ্বিতীয় স্ত্রীও অন্য ছেলের সঙ্গে পালিয়ে গেছে। এগুলো আমি আর সইতে পারছি না। তাই আত্মহত্যা করব।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার পেট্রোল ইন্সপেক্টর (পিআই) শেখ আবুল বাসার বলেন, দ্বিতীয় বিয়ে করার কারণে মামুনের প্রথম স্ত্রী বাবার বাড়ি চলে গেছেন। আর দ্বিতীয় স্ত্রী টাকা-পয়সা নিয়ে পালিয়ে গেলে অশান্তির শুরু। এ কারণে মামুন শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তাকে আপাতত থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

mamun 2পুলিশ মামুনকে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায়

এ বিষয়ে মামুনের দ্বিতীয় স্ত্রী ঊর্মির সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি মামুনের বিরুদ্ধে উল্টো অভিযোগ করে বসেন। তিনি বলেন, আপনারা বিশ্বাস না করলে বাড়িতে এসে দেখে যান তার কী আছে। আমি তার কী নিয়ে পালাব! বরং আমি চাকরি করে তাকে খাওয়াতাম। মামুন আমার টাকা নিয়ে নেশা করত। এখন তাকে নেশার টাকা দেই না বলে সে আমাকে মারার জন্য ঘুরে বেড়ায়।

তিনি আরো অভিযোগ করেন, মামুন দুবার আমার হাত ভেঙে দিয়েছে। এখনো সে আমাকে মারার জন্য চাপাতি নিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে। তার ভয়ে আমি আগের চাকরি ছেড়ে অন্য জায়গায় চাকরি নিয়েছি।