advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) তিতুমীর হলে র‌্যাগিংয়ে জড়িত থাকার দায়ে আট শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শিক্ষা কার্যক্রম এবং আজীবনের জন্য আবাসিক হল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

bangladesh university engineering and technology

তিতুমীর হলে র‌্যাগিংয়ের ঘটনা তদন্তে গঠিত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব রেসিডেন্স অ্যান্ড ডিসিপ্লিন কমিটি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বুধবার বুয়েটের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এছাড়া, একই ঘটনায় জড়িত থাকা ছয় শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে আবাসিক হল থেকে বহিষ্কার এবং ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। বুয়েট সোমবার এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে শিক্ষার্থীদের র‌্যাগিং বা সাংগঠনিক রাজনীতিতে জড়িত হলে কী শাস্তি হতে পারে তার মাত্রা জানিয়ে দেয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, র‍্যাগিংয়ের কারণে কোনো ছাত্রের মৃত্যু, গুরুতর শারীরিক ক্ষতি, কোনো ধরনের অক্ষমতা, স্থায়ী মানসিক ভারসাম্যহীনতা বা শিক্ষাজীবন ক্ষতিগ্রস্ত হলে অভিযুক্তকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হবে। পাশাপাশি অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন কর্মকর্তা।

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার পর শিক্ষার্থীদের ব্যাপক আন্দোলনের মুখে র‌্যাগিং বন্ধে এ পদক্ষেপ নেয় বিশ্ববিদ্যালয়। ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরারকে (২১) গত ৬ অক্টোবর রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার কয়েকজন নেতা-কর্মী।

বুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম ১১ অক্টোবর ক্যাম্পাসে সব ধরনের সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন।

sheikh mujib 2020