advertisement
আপনি দেখছেন

দেশের অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম শ্রুতিকটু মনে হয়। সেগুলো নিয়ে নানা সময় হাস্যরসেরও সৃষ্টি হয়। তাই শ্রুতিমধুর নয়, দেশের এমন সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সম্প্রতি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে একটি নির্দেশনাও পাঠিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

praimary education departmentপ্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (পলিসি ও অপারেশন) খালিদ আহমেদ স্বাক্ষরিত ওই নির্দেশনায় বলা হয়, আমাদের ভাষা ও সংস্কৃতির সঙ্গে সুশোভন ও শ্রুতিমধুর নয়, এমন কিছু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে দেশের বিভিন্ন জায়গায়। এসব বিদ্যালয়ের নাম নিয়ে সামাজিক মাধ্যমগুলোতে হাস্যরসেরও সৃষ্টি হচ্ছে। তাই এমন বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করা হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার এ নির্দেশনা দেশের প্রতিটি জেলার প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে। তাতে বলা হয়, আগামী ৩০ আগস্টের মধ্যে এসব শ্রুতিকটু বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করে দেশের ভাষা ও সংস্কৃতির সঙ্গে সামাঞ্জস্য রেখে নতুন নামকরণের প্রস্তাব পাঠাতে হবে।

manushmara govt praimary schoolমানুষমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়- ফাইল ছবি

শিক্ষা কর্মকর্তারা যাতে বিষয়টি পরিষ্কারভাবে বুঝতে পারেন সে জন্য নির্দেশনায় একটি উদহরণও দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়, শ্রুতিমধুর না হওয়ায় গত ফেব্রুয়ারিতে নীলফামারী সদর উপজেলার ‘মানুষমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে’র নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। বিদ্যালয়টির নতুন নামকরণ করা হয় ‘মানুষগড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’।

জানা যায়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এটি ছাড়াও বিচ্ছিন্নভাবে আরো অনেক শ্রুতকটু বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করেছে। তবে এবার নির্দেশনা দিয়ে দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা এসব বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করতে যাচ্ছে সরকার।

sheikh mujib 2020