advertisement
আপনি দেখছেন

করোনায় বন্ধ থাকা স্কুলের সেকায়েপ প্রকল্পে নির্মিত কয়েকটি টয়লেট ভেঙে ১৩ কক্ষ বিশিষ্ট মার্কেট নির্মাণ করা হয়েছে। সম্প্রতি এমন কাণ্ড ঘটেছে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে।

school toilet broke marketস্কুলের টয়লেট ভেঙে মার্কেট

স্থানীয়দের অভিযোগ, বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক লাল মাহমুদ মিয়া তৈরি করেছেন মার্কেটটি। এর দোকানগুলো বিদ্যালয়ের শিক্ষক, স্কুল কমিটির সদস্য ও অন্যদের নামে বরাদ্দ দিয়েছেন তিনি।

আরো অভিযোগ উঠেছে, মার্কেটের সুবিধার জন্য বিদ্যালয়ের নিরাপত্তা বেষ্টনীটিও ভেঙে ফেলার উদ্যোগ নিয়েছেন লাল মাহমুদ মিয়া, যেটি ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে সম্প্রতি তৈরি করা হয়।

school toilet broke market 1স্কুলের টয়লেট ভেঙে মার্কেট

অভিভাবকরা বলছেন, এর ফলে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পয়ঃনিষ্কাশন এবং নিরাপত্তা বিঘ্নিত হবে। তবে বিদ্যালয়ের উন্নয়নে ম্যানেজিং কমিটির অনুমতি নিয়ে এমনটি করা হয়েছে বা হচ্ছে বলে দাবি করেন লাল মাহমুদ মিয়া।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শাহিনুল ইসলাম বলেন, করোনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার সুযোগে সরকারি স্থাপনা ভেঙে মার্কেট তৈরি করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

school toilet broke market 2স্কুলের টয়লেট ভেঙে মার্কেট

ছাত্রীদের টয়লেট ভাঙার অনুমতি নেই উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছা. ইশরাত জাহান বলেন, এ জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

উল্লেখ্য, করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে গত বছরের ১৭ মার্চ দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। তার পর থেকে দফায় দফায় ছুটি বাড়িয়ে ১২ জুন পর্যন্ত করা হয়েছে, যা আরেক দফা বাড়ার ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে আজ রোববার।