advertisement
আপনি দেখছেন

করোনা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। অনেকে তাদের চাকরিও হারিয়েছেন। স্থবির হয়ে আছে সেখানকার জনজীবন। ভয়েস অব আমেরিকার প্রতিবেদনে এমন তথ্যই উঠে এসেছে।

italy corona

ইতালির অধিকাংশ শহরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সুপারশপ, রেস্টুরেন্ট, নাইট ক্লাব, সিনেমা হল, যাদুঘর সব বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির প্রশাসন। পাবলিক প্লেসগুলোতে মানুষের আনাগোনা কমে গেছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ তেমন একটা বের হচ্ছেন না।

ফলে দেশটির অর্থনৈতিক খাতে ধস নামার আশঙ্কা রয়েছে। ইতোমধ্যে চরম সংকটে পড়েছে রেস্টুরেন্ট ব্যবসা। সেখানকার বেশিরভাগ রেস্টুরেন্টের মালিক চীনা নাগরিক। এই ব্যবসার সঙ্গে অনেক বাংলাদেশি নাগরিকও জড়িত আছেন। রেস্টুরেন্ট বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে চাকরি হারাচ্ছেন বাংলাদেশিরা।

এদের মধ্যে একজন মাদারীপুরের প্রিন্স মাহমুদ। তিনি গত ১০ বছর ধরে ইতালিতে বসবাস করছেন। এতদিন সেখানকার একটি রেস্টুরেন্টে চাকরি করতেন। দুইদিন আগে তার চাকরি চলে যায়।

আইরিন খান নামে আরেক বাংলাদেশি গত ১৫ বছর ধরে ইতালিতে বসবাস করছেন। সেখানে তার নিজের ব্যবসা রয়েছে। তিনি বলেন, করোনা আতঙ্কে বাংলাদেশিদের মধ্যে ভয় কাজ করছে। কী করবেন কোনো দিশা পাচ্ছেন না।

উল্লেখ্য, চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইতালিতে এখন পর্যন্ত ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সংক্রমিত হয়েছেন অন্তত ২৮৩ জন। আর বাংলাদেশিদের মধ্যে সিঙ্গাপুরে পাঁচজন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে একজন আক্রান্ত হয়েছেন।