advertisement
আপনি দেখছেন

রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাওয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশি ফাহিম সালেহ খুন হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেলে নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে অবস্থিত ফাহিমের নিজ অ্যাপার্টমেন্ট থেকে তার খণ্ড-বিখণ্ড মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় পুলিশ এ নিয়ে তদন্তে নেমেছে। তবে তাদের প্রাথমিক পর্যক্ষেণ হল, এটা টার্গেট কিলিং।

pathao asif

জানা যায়, নিউইয়র্ক সময় মঙ্গলবার বিকেলে ফাহিমের খোঁজ করতে যান তার বোন। অনেক ডাকাডাকির পর দরজা না খোলায় পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে ফাহিমের ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার করে। পুলিশ জানিয়েছে, একটি বৈদ্যুতিক করাত দিয়ে নৃশংসভাবে ফাহিমকে কাটা হয়েছে। করাতটি পাশেই পড়ে ছিল। শরীরের বিভিন্ন অংশ ভরা ছিল একটি ব্যাগে।

পুলিশ জানায়, মেইন দরজা বন্ধ রেখে অন্য পাশ দিয়ে বেরিয়ে গেছে খুনি। সিসি ক্যামেরায় দেখা গেছে, মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পরে অ্যাপার্টমেন্টে প্রবেশ করেছিল এক ব্যক্তি। তারপর সম্ভবত ক্যামেরাটি ভেঙে ফেলা হয়েছে।

pathao new

ফাহিমের জন্ম ১৯৮৬ সালে। বাবা চট্টগ্রাম আর মা নোয়াখালীর মানুষ। আমেরিকার বেন্টলি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার পর নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে থিতু হয়েছিলেন ফাহিম। রাইড শেয়ারিংয়ের ব্যবসা দিয়ে প্রচুর টাকাও উপার্জন করেছিলেন তিনি। গত বছর ২.২ মিলিয়ন ডলার দিয়ে ম্যানহাটনের ডাউনটাউনে একটি অ্যাপার্টমেন্ট ক্রয় করেছিলেন।

sheikh mujib 2020