advertisement
আপনি দেখছেন

এক পাপুলকাণ্ডে নড়েচড়ে বসেছে কুয়েত। দেশটির সরকার মানব পাচারের বিরুদ্ধে সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। বাংলাদেশের এমপি পাপুলের সহযোগী হিসেবে ধরা হয়েছে কুয়েতের অনেক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে। তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞাসহ বিভিন্ন রকম ব্যবস্থা নেওয়ার ফলে তার প্রভাব পড়ছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ওপর। সর্বশেষ ব্যবস্থা অনুযায়ী, পাপুলকাণ্ডে এবার অনেক বাংলাদেশি শ্রমিকের ওয়ার্ক পারমিটও বাতিল করা হচ্ছে।

mp papul

কুয়েতি সংবাদমাধ্যম আল কাবাসের বরাতে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে গালফ নিউজ। প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, পাপুলের কাছ থেকে অর্থ নিয়ে তার বিনিময়ে অনেক বাংলাদেশি শ্রমিকের অবৈধ কাগজপত্রে সই করেছেন কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব মেজর জেনারেল মাজেন আল-জাররাহ। অবৈধ হলেও ওই ভুয়া অনুমোদনের কল্যাণে বাংলাদেশি এসব শ্রমিকরা কাজ করতেন পাপুলের প্রতিষ্ঠানে।

গ্রেপ্তার হওয়া মেজর জেনারেল মাজেন আল-জাররাহের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে কুয়েত। এছাড়া তার সই করা সব কাগজপত্র আবার পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তার হাত দিয়ে অনুমোদন দেওয়া বিদেশি শ্রমিকদের ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করা হচ্ছে। জানা যায়, ২০১৪ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত দেশটিতে নাগরিকত্ব, পাসপোর্ট ও ওয়ার্ক পারমিট সংক্রান্ত অনুমোদনের দায়িত্ব ছিল আল জাররাহের ওপর।

kuwait capital

জানা যায়, পাপুল ও আল জাররাহের মধ্যে অবৈধ লেনদেনের মাধ্যমে হাজারো বাংলাদেশিকে ওয়ার্ক পারমিট দেওয়া হয়েছে ওই চার বছরের মধ্যে, যেগুলো এখন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বাতিল করা হচ্ছে। পাপুলের মতোই এই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বর্তমানে কারাগারে অবস্থান করছেন।