advertisement
আপনি দেখছেন

করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে ইতালি যাওয়ার পরও কয়েকজন বাংলাদেশির শরীরে করোনা চিহ্নিত হওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে ইতালি। যাত্রীর শরীরে করোনা চিহ্নিত হওয়া ওই ফ্লাইট তারা বিমানবন্দর থেকেই ফেরত পাঠিয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশে করোনার রিপোর্ট জালিয়াতির ঘটনা সেখানকার গণমাধ্যমে শিরোনাম হয়েছে। ইতালি সরকার এবার আরো কঠোর অবস্থান নিয়ে ‘প্রত্যেক বাংলাদেশির করোনা পরীক্ষা’র নির্দেশ জারি করেছে।

sample test

নির্দেশনা অনুযায়ী, ইতালিতে অবস্থানরত প্রত্যেক বাংলাদেশির করোনাভাইরাস পরীক্ষা করতে হবে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর কিংবা সম্প্রতি যারা ইতালিতে প্রবেশ করেছেন শুধু তারাই নন, আগে থেকে যারা আছেন তাদেরকেও নমুনা পরীক্ষা করতে হবে। এমন ঢালাও নির্দেশনায় বিপাকে পড়েছেন অনেক বাংলাদেশি। তবে তারা এও বলছেন, নিজেদের দোষেই আজকে আমরা নমুনা পরীক্ষা করতে বাধ্য হচ্ছি।

দূতাবাসের এক কর্মকর্তা বলেছেন, আসলে ইতালি সরকারের আস্থা নষ্ট হয়ে গেছে। বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের ভুয়া রিপোর্ট সরবরাহের ঘটনার পর কোনো বাংলাদেশির ওপর তারা আর বিশ্বাস রাখতে পারছে না। তাই এমন ঢালাও নির্দেশনা দিয়েছে। এছাড়া অন্যান্য অ্যাকশনের মধ্যে ফ্লাইট বন্ধ করে দেওয়া তো আছেই।

foreign ministry new

এদিকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ ব্যাপারে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়, কিছু লোক কোয়োরেন্টাইনের শর্ত মানেননি। তাদের গাফিলতির জন্যই অন্যান্য সব বাংলাদেশিকে করোনা পরীক্ষা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। প্রবাসীরা যদি সতর্ক থাকতেন, তাহলে এমন নির্দেশনা আসতো না।