advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতে গরু চোর সন্দেহে তিন বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয় জনতা। গতকাল শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে দেশটির আসাম রাজ্যের করিমগঞ্জ জেলার পাথরকান্দি থানাধীন বগ্রিজান ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে।

tea state in asamআসামের চা বাগান- পুরান ছবি

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু জানায়, পাথরকান্দি থানার আওতাধীন বগ্রিজান চা বাগান এলাকায় তিন বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয় জনতা। ওই চা বাগানটি পাথরকান্দি পুলিশ ফাঁড়ি থেকে দেড় কিলোমিটার দূরে এবং ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) ১৩৪ ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের কাছে অবস্থিত।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে করিমগঞ্জের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কৃষ্ণ সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, তদন্তে জানা গেছে, ওই বাংলাদেশিরা গরু চুরির উদ্দেশ্যে অবৈধভাবে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে প্রবেশ করেছিলো। তাদের সঙ্গে আরো চার ব্যক্তি ছিলো, যারা রাতের অন্ধকারে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। বাকি তিনজন স্থানীয় জনতার পিটুনিতে নিহত হয়েছে। তবে হত্যাকারীদের পরিচয় নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি।

the hindu newsদ্য হিন্দুর প্রতিবেদন

তিনি আরো জানান, নিহত বাংলাদেশিদের কাছ থেকে বাংলাদেশে তৈরি বিস্কুট, রুটিসহ সীমান্তের কাঁটাতার কাটার সরঞ্জাম, ব্যাগ ও দড়ি পাওয়া গেছে। পুলিশ মরদেহগুলো উদ্ধার করেছে। মৃতদেহগুলো বিএসএফের মাধ্যমে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, গত দুই মাসে করিমগঞ্জ জেলার চা বাগানে ঘটা এটি দ্বিতীয় ঘটনা। এর অগে গত ১ জুন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে পুত্নী চা বাগান এলাকায় গরু চোর সন্দেহে রঞ্জিত মান্ডা নামে (৪৩) এক বাংলাদেশিকে হত্যা করে স্থানীয় জনতা। ওই ঘটনায় রঞ্জিতের সঙ্গে আরো তিন বাংলাদেশি ও দুই ভারতীয় ছিলো। পরে তার মৃতদেহ বিজিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়।