advertisement
আপনি দেখছেন

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অভিবাসীদের প্রতি দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বৈষম্যমূলক আচরণের কথা উল্লেখ করেছিলেন ২৫ বছর বয়সী বাংলাদেশি অভিবাসী যুবক রায়হান কবির। এতে তার ওপর ক্ষুব্ধ হয় মালয়েশিয়া সরকার। বেশ কিছুদিন আগেই তাকে গ্রেপ্তার করে দেশটির পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতে হাজির করে ১৪ দিনের রিমান্ড চাইলে ১৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

raihan kabir

রায়হানের আইনজীবী সুমিতা শান্তিনি কিষনা বলেন, আগের দিন রাতেই আমরা জানতে পারি, রায়হান কবিরকে আদালতে তোলা হচ্ছে। সে অনুযায়ী বৃহস্পতিবার আমরা আদালতে উপস্থিত হই। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য, বাংলাদেশ হাইকমিশনের কোনো স্তরের কর্মকর্তাই ওই সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

তিনি আরো বলেন, রায়হান কবির তার আগের কথাতেই অটল আছেন। তিনি মালয়েশিয়ায় যা দেখেছেন তাই বলেছেন, কিছুমাত্র বানিয়ে বলেননি। বাস্তবতা তুলে ধরা ছাড়া মালয়েশিয়ার কাউকে আহত করা তার উদ্দেশ্য ছিল না। তাছাড়া পুলিশ এখনো রায়হানের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ আনতে পারেনি।

malyesia police

সম্প্রতি কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা ‘লকড আপ ইন মালয়েশিয়া’স লকডাউন’ শিরোনামে একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রচার করে। ২৬ মিনিটের ওই প্রামাণ্যচিত্রের ৫ মিনিটের দিকে রায়হান কবিরকে কথা বলতে দেখা যায়। সেখানে রায়হান কবির জানান, তিনি মালয়েশিয়ার চোয়াক জেলায় বসবাস করেন।

এ সময় তিনি আল জাজিরার প্রতিবেদককে ভিডিওর মাধ্যমে মালয়েশিয়ার প্রশাসনের কিছু পদক্ষেপের দৃশ্য দেখান। যেখানে দেখা যায়, ট্রাকে করে প্রায় ৬০০ অভিবাসীকে অন্য কোথাও নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ওই প্রামাণ্য চিত্রে শুধু রায়হান কবিরই নন, আরো অনেক দেশের অভিবাসীরা নিজেদের সমস্যার কথা তুলে ধরেছেন।

sheikh mujib 2020