advertisement
আপনি দেখছেন

নর্থ মেসিডোনিয়ায় ট্রাক থেকে বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের ১৪৮ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ। গতকাল বুধবার দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় শহর ভাকসিন্সের সার্বিয়া সীমান্তবর্তী এলাকা ও রাজধানী স্কোপজে থেকে ১১০ কিলোমিটার দক্ষিণের দেমির কাপিজা শহরের কাছে ভিন্ন দুটি ট্রাক থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

maigrant caughtনর্থ মেসিডোনিয়ায় ট্রাক থেকে বাংলাদেশিসহ ১৪৮ জন উদ্ধার- ছবি সংগৃহীত

দেশটির পুলিশের বরাত দিয়ে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাক দুটি থেকে বিভিন্ন দেশের যথক্রমে ৪৫ জন ও ১০৩ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃতদের মধ্যে ২৯ জন শিশুও ছিলো। তাদের সবাইকে আশ্রয়কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, একটি ট্রাকে পাকিস্তানে ৮১ জন, আফগানিস্তানের ১০ জন, ভারতের ৮ জন, মিশরের ২ জন, ইরানের ১ জন এবং সিরিয়ার ১ জন নাগরিক ছিলো। অন্য ট্রাকটিতে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, সিরিয়া, সোমালিয়া ও ফিলিস্তিনের ৪৫ জন নাগরিক ছিলো। তবে ঠিক কতজন বাংলাদেশিকে উদ্ধার করা হয়েছে তা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়নি।

dawn newsপাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডনের প্রতিবেদন

এ ঘটনায় সন্দেহভাজন স্থানীয় দুই পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছে নর্থ মেসিডোনিয়ার পুলিশ।

এ নিয়ে চলতি বছর গত আড়াই মাসে তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশি অভিবাসীদের পাচারের সময় উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ বাহিনী। এর আগে গত জুনের শেষের দিকে ৬৪ জন এবং জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে ১৪৪ জন বাংলাদেশিকে ট্রাক থেকে উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির কারণে বর্তমানে নর্থ মেসিডোনিয়া-গ্রীস বন্ধ রয়েছে। কিন্তু তারপরও থেমে নেই মানবপাচার। গত জুলাই থেকে এখন পর্যন্ত সেখানে পাচারকালে প্রায় সাড়ে ৫০০ জন অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশিও রয়েছেন।

sheikh mujib 2020