advertisement
আপনি পড়ছেন

করোনার দৈনিক সংক্রমণের হার উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়ে যাওয়ায় বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করে ‘ব্যতিক্রমী লাল তালিকা’ প্রকাশ করেছে কাতার। ভ্রমণ ও প্রত্যাবর্তন নীতির আওতায় এই তালিকায় সবুজ ও লাল তালিকার সঙ্গে ৯টি দেশকে ব্যতিক্রমী ক্যাটাগরিতে ফেলেছে দেশটি।

qatars exceptional red listকাতারের ‘ব্যতিক্রমী লাল তালিকা’য় বাংলাদেশ

আরব টাইমস জানায়, চলমান মহামারির ঝুঁকি সামনে রেখে এসব দেশের বিরুদ্ধে নতুন ভ্রমণ বিধিনিষেধ কার্যকর করবে কাতার সরকার। স্থানীয় সময় আগামী শনিবার (৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টা থেকে এটি কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে। আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় স্বাস্থ্যঝুঁকি সূচক ও করোনা ঝুঁকি বিবেচনায় এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে।

কাতারের লাল তালিকায় বিশ্বের নানা প্রান্তের ৫৭টি দেশের নাম রয়েছে। এসব দেশ থেকে টিকা না নেয়া এবং কোয়ারেন্টাইনে না থাকা বিদেশি যাত্রীদের দেশটিতে পৌঁছার ৭২ ঘণ্টা আগে পিসিআর পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। এর রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত দুদিন হোটেল কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

qatars exceptional red list 1কাতারের ‘ব্যতিক্রমী লাল তালিকা’য় বাংলাদেশ

এছাড়া টিকার পূর্ণ ডোজ নেয়া কাতারি নাগরিক বা বাসিন্দারা লাল তালিকাভুক্ত দেশ থেকে ফিরলে কোয়ারেন্টাইন পালন করতে হবে না। তুরস্ক, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রকে সবুজ তালিকা থেকে লাল তালিকায় নিয়েছে দেশটির জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

সবুজ ও লাল তালিকার বাইরে তৈরি করা ‘ব্যতিক্রমী লাল তালিকা’য় রয়েছে- বাংলাদেশ, মিশর, নেপাল, বতসোয়ানা, লেসোথো, নামিবিয়া, পাকিস্তান, ভারত ও জিম্বাবুয়ে। এসব দেশ থেকে টিকা নেয়া কাতারিদের দেশে ফেরার পর দুদিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। তাদের কাতারে পৌঁছার ৭২ ঘণ্টা আগে এবং পৌঁছানোর ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর পরীক্ষায় নেগেটিভ থাকতে হবে। এসব শর্ত সকল বয়সীদের জন্য প্রযোজ্য হবে।