advertisement
আপনি দেখছেন

বলা হয়ে থাকে, কারো হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া যদি এক মুহূর্তের জন্যও বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে তার আর পৃথিবীর আলো দেখার কোনো আশা নেই। কিন্তু সম্প্রতি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হওয়ার প্রায় ছয় ঘণ্টা পরও বেঁচে উঠেছেন অড্রে শোম্যান নামের এক ব্রিটিশ নারী। তবে চিকিৎসকরা এই ঘটনাকে ‘ব্যতিক্রম’ বলে আখ্যা দিয়েছেন।

audrey shomanহাসপাতালে চিকিৎসকদের সঙ্গে অড্রে শোম্যান এবং রোহান শোম্যান

গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে ওই নারীর স্বামী রোহান শোম্যান জানান, গত নভেম্বর মাসে তারা স্পেনের কাতালোনিয়া পিরিনীয় পর্বতমালায় আরোহন করতে যান। সেখানে হঠাৎ করেই তুষারঝড়ে আটকা পড়েন তারা। এক পর্যায়ে তার স্ত্রী অড্রে হাইপোথার্মিয়ায় আক্রান্ত হয়ে অচেতন হয়ে পড়েন। কিন্তু ওই সময় আশেপাশে কোন জরুরি স্বাস্থ্যসেবা না পাওয়ায় তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা যাচ্ছিল না।

এদিকে অড্রের শরীরের তাপমাত্রাও কমতে শুরু করে। আবার ঝড় থামারও কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছিল না। এক পর্যায়ে ওই নারীর শরীরের তাপমাত্রা কমতে কমতে ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে আসে। তখন রোহান ধরেই নিয়েছিলেন তার স্ত্রী মারা গেছে। এমনকি স্ত্রী নিঃশ্বাস এবং হৃৎস্পন্দও অনুভব করতে পারছিলে না তিনি।

এভাবে প্রায় দুই ঘণ্টা অতিবাহিত হওয়ার পর জরুরি সেবাদানকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে। ওই সময় এড্রের কোন শরীরের কোন ধরনের বেঁচে থাকার সংকেত না পাওয়ায় উদ্ধারকারী দল তাকে কোন প্রাথমিক চিকিৎসা দিতে পারেনি। পরে নিরাশ হয়ে তাকে বার্সেলোনার ভাল ডি হেব্রন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে প্রায় ছয় ঘণ্টা পর বেঁচে ওঠেন অড্রে।

হাসপাতালের চিকিৎসক এদুয়ার্দ আরগুদো বলেন, অড্রেকে যখন আনা হয়েছিল তখন তাকে একজন মৃত মানুষের মতোই দেখাচ্ছিলো।