advertisement
আপনি দেখছেন

রেস্তোরাঁয় খেতে গিয়ে খাবারের বিলতো সকলকেই দিতে হয়। কোথাও কোথাও আবার গুণতে হয় সার্ভিস চার্জ বা টিপসের মতো চার্জও। রেস্তোরাঁর আসবাবপত্র ভেঙ্গে কিছু কিছু জায়গায় জরিমানা দিতে হলেও ‘বোকা প্রশ্ন’ করার জন্য নিশ্চই কখনো কাউকে অর্থ প্রদান করতে হয়নি।

toms diner resturant

তবে যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভারের টমস ডিনার নামের একটি রেস্তোরাঁয় খাবার অর্ডার করতে গিয়ে ‘বোকা প্রশ্ন’ করলেই প্রতিটি প্রশ্নের জন্য ৩৮ সেন্ট (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩২ টাকা) অতিরিক্ত অর্থ গুণতে হবে গ্রাহককে। সম্প্রতি রেস্তোরাঁটির এমনই একটি বিলের ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে। যা নিয়ে রীতিমতো আলোচনার ঝড় উঠেছে ইন্টারনেট দুনিয়ায়।

জানা যায়, সম্প্রতি এক ব্যক্তি ওই রেস্তোরাঁটিতে খাবার খেতে গিয়েছিলেন। মুরগির ফ্রাই আর আলু দিয়ে খাওয়াও শেষ করেছিলেন কোন সমস্যা ছাড়া। কিন্তু বিল দিতে গিয়ে রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় তার। তিনি দেখেন, বিলে মুরগির জন্য ৯ ডলার (প্রায় ৭৬৩ টাকা) আর আলুর জন্য ২ ডলার ৯৯ সেন্টের (প্রায় ২৫৩ ডলার) পাশাপাশি একটি ‘বোকা প্রশ্নের’ জন্য ৩৮ সেন্টের (প্রায় ৩২ টাকা) চার্জ ধরা হয়েছে।

toms diner bil

এ বিষয়ে রেস্তোরাঁটির জেনারেল ম্যানেজার হান্টার ল্যান্ড্রি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানান, ১৯৯৯ সালে তার চাচা টম মেনেসা প্রথম এই প্রথাটি চালু করেন। তারপর থেকে এটি এখন পর্যন্ত চলে আসছে। এমনকি ‘বোকা প্রশ্ন’ করার জন্য ৩৮ সেন্ট বিলের কথা তাদের মেনু কার্ডেও দেওয়া আছে।

তবে ঠিক কী ‘বোকা প্রশ্ন’ করার জন্য ওই ব্যক্তিকে চার্জ করা হলো সে সম্পর্কে জানা যায়নি।

‘বোকা প্রশ্নের’ বিষয়ে ল্যান্ড্রি জানান, গ্রাহকরা খেতে এসে প্রায় সময়ই বিভিন্ন ধরনের বোকা বোকা প্রশ্ন করে থাকে। যেমন- আপনাদের এখানে কী বাকিতে টার্কি ক্লাব স্যান্ডউইচ খাওয়া যাবে? বা বরফে কি জল আছে?

toms diner resturant menu card

তিনি আরো জানান, তাদের রেস্তোরাঁর মেনু কার্ডে ‘বোকা প্রশ্নের’ অপশানটি ছাড়াও আরো কয়েকটি মজার অপশান আছে। সেগুলো হলো- অর্থ বাঁচাতে আপনার পরবর্তী মিলটি পরিহার করুন বা হেঁটে বাড়ি যাবার জন্য আপনাকে কোন অর্থ প্রদান করতে হবে না।

sheikh mujib 2020