advertisement
আপনি দেখছেন

নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ও মৃত্যুর দিক দিয়ে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মহামারি এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে দেশটির প্রশাসন। প্রাণঘাতী ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে প্রত্যেক নাগরিককেই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। অথচ এমন পরিস্থিতিতেও একদল তরুণ পুরস্কারের লোভে জেনেশুনে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের সঙ্গে পার্টি করছে। শুনতে অবাক লাগলেও এমনটাই ঘটেছে দেশটির আলাবামা প্রদেশের তাসকালোসা শহরে।

corona virusকরোনাভাইরাস- প্রতীকী ছবি

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, সম্প্রতি আলাবামা ইউনিভার্সিটির একদল তরুণ তাসকালোসা শহরে এমন একটি পার্টির আয়োজন করেছে, যেখানে জেনেশুনে করোনাভাইরাস আক্রান্তদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। তাদের আমন্ত্রণ জানানো উদ্দেশ্য হচ্ছে, সুস্থ ব্যক্তিদের সংক্রমিত করা। কারণ ওই তরুণদের মধ্যে যে আগে কোভিড-১৯ সংক্রমিত হবে সে পুরস্কার হিসেবে পাবে মোট অঙ্কের অর্থ।

তরুণদের এমন পাগলামির কথা জানাজানি হতেই ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। সারা বিশ্বই যখন প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে তটস্থ তখন তরুণদের এমন দায়িত্বজ্ঞানহীনতায় রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নেটিজেনরা। বিষয়টি নিয়ে তদন্তও শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ।

albama universityআলাবামা ইউনিভার্সিটি- ফাইল ছবি

এ বিষয়ে তাসকালোসার সিটি কাউন্সিলের সদস্য সোন্যা ম্যাককিন্সট্রি বলেন, কে আগে সংক্রমিত হবে এমন বাজি ধরেই ওই পার্টি আয়োজন করা হয়। পার্টিতে আসা প্রত্যেকেই একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ মাটির কলসিতে জমা রাখে। তারপর সুস্থ তরুণরা কোভিড-১৯ পজিটিভদের সঙ্গে অবাধে মেলামেশা শুরু হয়। তারপর পার্টিতে অংশগ্রহণকারীদের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা হয়। যে সবার আগে সংক্রমিত হবে তাকে পুরস্কার হিসেবে ওই অর্থ দেওয়া হবে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেটিজেনরার বলছেন, এমন দায়িত্বজ্ঞানহীনতার জন্য ওই তরুণদের শাস্তি দেওয়া উচিত। তারা শুধু নিজেদেরই ক্ষতি করছে না বরং তাদের আশপাশে থাকা অন্য মানুষদেরও ভয়ংকর বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছে।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ৩০ লাখ ৪১ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ইতোমধ্যে প্রাণ হারিয়েছে প্রায় ১ লাখ ৩৩ হাজার মানুষ। আর চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৩ লাখ ২৫ হাজারের বেশি মানুষ।

sheikh mujib 2020