advertisement
আপনি পড়ছেন

ভয়ংকর কুমির দিয়ে ভর্তি গোটা নদী। এরমধ্যেই ‘পথ হারিয়ে ভুল করে’ ঢুকে পড়েছে একটি হাম্পব্যাক তিমি। সম্প্রতি এমন ঘটনা ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ায়। গত সপ্তাহে দেশটির উত্তরাঞ্চলের কাকাডু ন্যাশনাল পার্কের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হওয়া ইস্ট এলিগেটর নদীতে এ স্তন্যপায়ী প্রাণিটিকে দেখা যায়।

hampback whaleইস্ট এলিগেটর নদীতেচলে আসা হাম্পব্যাক তিমি। ছবি- সংগৃহীত

গতকাল সোমবার বিবিসি'র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত সপ্তাহে ইস্ট এলিগেটর নদীতে নৌকা নিয়ে ভ্রমণ করতে যান একদল পর্যটক। তখন তারা তিমিটিকে নদীতে সাঁতরাতে দেখেন।

দেশটির স্থানীয় কর্মকর্তারা ধারণা করছেন, কোনো হাম্পব্যাক তিমির দল খাবারের সন্ধানে দক্ষিণ অ্যান্টার্কটিকার দিকে যাওয়ার পথে মোহনা দিয়ে কয়েকটি তিমি ভুল করে নদীতে ঢুকে পড়ে।

দুটি তিমি আবার সাগরে ফিরে যায়। তবে অন্তত একটি তিমি এখনো সেখানে রয়ে গেছে।

কর্মকর্তারা আরো জানান, নদীতে থেকে যাওয়া তিমিটির দৈর্ঘ্য আনুমানিক ৫২ ফুট বা ১৬ মিটার। এটি ইতোমধ্যে সাঁতরে নদীর ৩০ কিলোমিটার গভীরে চলে গেছে। তারা সেটিকে আবার সঠিক পথে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন।

east eligator riverইস্ট এলিগেটর নদী। ছবি- সংগৃহীত

তিমিটি বিশাল আকৃতির হওয়ায় কুমির বিরক্ত করবে না বলে মনে করছেন কর্মকর্তারা। তবে তারা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, তিমিটি যদি সঠিক পথে আসার পরিবর্তে নদীর অগভীর পানিতে চলে যায় এবং আটকে পড়ে তখন সমস্যায় পড়তে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিবছর সন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য হাম্পব্যাক তিমির দল অস্ট্রেলিয়ার উষ্ণ পানির সাগরে আসে। পরে খাবারের সন্ধানে আবার অ্যান্টার্কটিকায় ফিরে যায়। এ সময় কিছু তিমি ‘ভুল বাঁক’ নেয়। তবে অস্ট্রেলিয়ার কুমির ভর্তি নদীর এত গভীরে কোনো তিমির চলে আসার ঘটনা এবারই প্রথম।

এ বিষয়ে বাস্তুসংস্থান বিজ্ঞানী ক্যারল পালমার বলেন, গোটা অস্ট্রেলিয়ায় এমন ঘটনা এর আগে ঘটেনি। এটি সত্যিই একটি অস্বাভাবিক ঘটনা।