advertisement
আপনি দেখছেন

হঠাৎ করেই নিজেদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৯০৬ কোটি টাকা দেখে বিস্ময়ে হতবাক দুই স্কুলছাত্র। বিপুল এই অর্থ কোত্থেকে অ্যাকাউন্টে এসেছে, সে বিষয়ে কিছুই জানে না তারা। একই অবস্থার কথা জানিয়েছেন দুই ছাত্রের অভিভাবকরাও। এমন অবাককাণ্ড ঘটেছে ভারতের বিহারের কাটিহার জেলায়।

indian rupeesভারতীয় রুপি, ফাইল ছবি

এনডিটিভি ও ইন্ডিয়া টুডে জানায়, পড়াশোনায় সহায়তা করতে স্কুল শিক্ষার্থীদের অনুদান দিয়ে থাকে সরকার। সে জন্য উত্তর বিহারের গ্রামীণ ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খোলেন ওই দুই ছাত্র। করোনাকালে স্কুলড্রেসের অনুদানের টাকা এসেছে কি না- সেটি জানতে বাবা-মায়ের সাথে একটি ইন্টারনেট সেবাকেন্দ্রে যান তারা। এ সময় অ্যাকাউন্টের ৯০৬ কোটি রুপি দেখে রীতিমতো অবাক বনে যান সবাই।

এদের মধ্যে ষষ্ঠ শ্রেণির গুরুচরণ বিশ্বাসের অ্যাকাউন্টে ৯০৬ কোটি রুপি এসেছে। একই শ্রেণির আশিস নামের আরেক ছাত্রের অ্যাকাউন্টে ৬ কোটি ২ লাখ রুপি পাওয়া যায়। বাংলাদেশি মুদ্রার হিসাবে ১০,৪৯,০৮,৭২,৬৫৩ দশমিক ৮৪ টাকার মালিক হন তারা। তাদের অ্যাকাউন্টে এত টাকা দেখে অন্যান্য নিজেদের ব্যাংক হিসাব চেক করতে থাকেন। যদিও এ ঘটনা অন্য কারো ক্ষেত্রে দেখা যায়নি।

indian student 1দুই ছাত্রের ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ব্যাংক স্টেটমেন্ট

বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা জনিয়েছে গ্রামীণ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ও জেলা প্রশাসন। তবে কম্পিউটার সিস্টেমে সমস্যার কারণে এমনটা হয়েছে বলে ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বলেন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট উদয় মিশরা।

এর আগেও এ ধরনের ‘মারাত্মক ভুল’ ঘটেছে বিহারের খাগরিয়া জেলায়। রঞ্জিত দাস নামের এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে সাড়ে ৫ লাখ রুপি জমা পড়েছিল। পরে সেই অর্থ ফেরত দিতে অস্বীকার জানিয়ে তিনি দাবি করেন, দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাঠিয়েছেন তা। তবে আশিস কিংবা গুরুচরণ তাদের অ্যাকাউন্টে দেখানো টাকা তুলতে পারবে না, বরং সেটা শুধু স্টেটমেন্টেই দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।