advertisement
আপনি দেখছেন

বাড়িটা এক আমলার। সেই আমলার স্ত্রী আবার ম্যাজিস্ট্রেট। মানে বাড়িটা মোটামুটি এলিটদেরই। কিছু মানুষের (চোর) হয়তো ধারণা ছিল এতে হানা দিলে পাওয়া যাবে অঢেল টাকা পয়সা, ধনরত্ন। কিন্তু আশা পূরণ হয়নি তাদের। যাওয়ার আগে কষ্ট করে লেখা একটি চিঠিতে এ কথা স্পষ্ট জানা যায়। বলতে গেলে এক ধরনের লজ্জাই দিচ্ছে ওই আমলাকে।

letter from thievesঅসন্তুষ্ট চোরের চিঠি

পুলিশে করা অভিযোগে জানা গেছে, ভারতের মধ্যপ্রদেশের দেবাস জেলার এক সরকারি আমলা ত্রিলোচন গৌড়। সম্প্রতি দেবাস জেলার খটেগাঁওয়ের মহকুমা শাসক হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। অন্যদিকে রতলামের ম্যাজিস্ট্রেট হয়েছেন তাঁর স্ত্রী। গত ২০ সেপ্টেম্বর দু’জনেই যে যাঁর কাজের দায়িত্ব পালনে চলে যান। গত রোববার তারা বাংলোয় ফিরে দেখেন, সদর দরজা ভাঙা। ঘরবাড়ি লন্ডভণ্ড। আলমারির থেকে টাকাপয়সা, গয়নাগাঁটি চুরি হয়ে গেছে।

হিসাব করে দেখেছেন, তার বাড়িতে আসা অনাহূত ব্যক্তিরা তার ফাঁকা বাংলোয় ঢুকে আলমারি ভেঙে ৩০ হাজার টাকা-সহ গয়না চুরি করে নিয়ে গেছে। কিন্তু চোরেদের তাতে তেমন একটা পোষায়নি।

অপটু হাতে সে কথা একটি চিঠিতে লিখে রেখে গেছে, টাকাই তো নেই। নেই তো, ঘরবাড়ি তালাবন্ধ করে রাখেন কেন? যদি টাকাপয়সা না-ই থাকে, তবে তালাবন্ধ করার প্রয়োজন নেই কালেক্টর।’