advertisement
আপনি দেখছেন

দেশের প্রথম অনলাইন নিউজপোর্টাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সিনিয়র চার সম্পাদকের বিরুদ্ধে এবার মামলার আবেদন করা হয়েছে। বুধবার বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ২০০ কোটি টাকার ‘মানহানির’ অভিযোগে এটি করা হয়।

bdnews24বিডিনিউজ সম্পাদকদের সংবাদ সম্মেলন -ফাইল ছবি

ডয়চে ভেলে জানায়, প্রিমিয়ার গ্রুপ অব কোম্পানিজের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক এমপি ডা. এইচ বি এম ইকবাল। তিনি ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে দায়ের করা মামলার কার্যক্রম নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ মুছে ফেলতে ‘অযৌক্তিক’ চাপ দেয়ার অভিযোগ করেছে পোর্টালটি।

এ জন্য কয়েক ডজন উকিল নোটিস পাঠানোর পর এবার গণমাধ্যমটির সিনিয়র চার সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করা হলো। এটি দায়ের করেছেন ডা. ইকবালের ‘বন্ধু’ হিসেবে পরিচিত কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল।

আর্জির বিবাদীরা হলেন- বিডিনিউজের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, হেড অব নিউজ (ইংলিশ) অরুণ দেবনাথ, বার্তা সম্পাদক জাহিদুল কবির ও বার্তা সম্পাদক মুনীরুল ইসলাম।

মামলার আর্জিতে দাবি করা হয়, ডা. ইকবাল ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলো থেকে তারা খালাস পেয়েছেন। কিন্তু মামলার কার্যক্রম নিয়ে বিডিনিউজের আগেকার প্রতিবেদনগুলো এখনো অনলাইনে দেখা যাচ্ছে।

tawfiq imroz khalidiতৌফিক ইমরোজ খালিদী -ফাইল ছবি

সেগুলোকে ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা, কাল্পনিক ও বানোয়াট’ আখ্যায়িত করে আরো বলা হয়, এতে দেশ-বিদেশে ডা. ইকবাল পরিবারের সম্মানহানি হচ্ছে। এরই প্রেক্ষিতে ২০০ কোটি টাকার মানহানির মামলার আবেদন করা হয়েছে।

প্রকাশিত ওইসব সংবাদে ডা. ইকবাল ছাড়াও তার দুই ছেলে মঈন ইকবাল ও ইমরান ইকবাল, মেয়ে নওরীন ইকবাল এবং স্ত্রী মমতাজ বেগমের নাম রয়েছে।

এ বিষয়ে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি এক সংবাদ সম্মেলনে তৌফিক ইমরোজ খালিদী বলেন, প্রতিবেদন সরাতে দীর্ঘদিন নানাভাবে চেষ্টার পরে চাপ দেয়ার অদ্ভুত এক কৌশল নিয়েছেন তারা। তবে এতে নতি স্বীকার করা হবে না।

আর্কাইভে এসব তথ্য তরুণ সহকর্মী ও ভবিষ্যৎ গবেষণার জন্য থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অনৈতিক’ চাপের বিরুদ্ধে আইনি পথেই লড়বেন তারা। বিচারক তো অন্ধ নন।