advertisement
আপনি দেখছেন

'তোমার হল শুরু, আমার হল সারা/ তোমায় আমায় মিলে- এমনি বহে ধারা।' ফটোগ্রাফার যখন ছবি তোলার জন্য ইয়াসিন আরাফাতকে পাশে এনে বসালেন, তখন আব্দুর রাজ্জাকের মনের বেতারে কি এই গানটাই হুহু করে বাজছিলো?

abdur razzak and yasin arafat in a single picture

বাজতেই পারে! ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর সামনে রেখে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) যে স্কোয়াড ঘোষণা করেছে, সেখানে আব্দুর রাজ্জাক হলেন জ্যেষ্ঠতম আর কনিষ্ঠতম হলেন ইয়াসিন আরাফাত। এমন দুজনের পাশাপাশি হওয়ার আবহ সঙ্গীত কবিগুরুর ওই গান ছাড়া আর কী-ই বা হতে পারে!

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের প্রাথমিক স্কোয়াডের অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হয়েছে রোববার থেকে। এ দিনই বিসিবির জিমনেসিয়ামে পাশাপাশি বসে ছবি তুললেন বাংলাদেশের দুই প্রজন্মের দুই ক্রিকেটার।

আব্দুর রাজ্জাক যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন, ইয়াসিন আরাফাত তখন ছয় বছরের শিশু। রাজ্জাক যখন তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ দেখে ফেলেছেন, ইয়াসিন তখন সবেমাত্র ঘরোয়া পর্যায়ে আলো ছড়িয়ে পেয়েছেন জাতীয় দলের চৌকাঠে পা রাখার অধিকার। 

রাজ্জাকের ক্যারিয়ারটা প্রায় শেষই হয়ে গিয়েছিলো। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দেশের মাটিতে অনুষ্ঠেয় গত সিরিজে হঠাৎ করেই তাকে দলে ডাকেন নির্বাচকরা। সাকিব আল হাসানের ইনজুরি শাপেবর হয়ে আসে বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা বাঁহাতি স্পিনারের জন্য। সুযোগ পেয়েই ‘বুড়ো’ হাড়ের ভেলকি দেখান রাজ্জাক।

ফলে এবার আর সাকিবের ইনজুরির কারণে নয়, রাজ্জাক জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে ডাক পেয়ে গেছেন তার পারফর্ম্যান্স দিয়েই। দীর্ঘ চার বছর জাতীয় দলের বাইরে থাকার সময় রাজ্জাক বারবার বলেছেন যে, ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গেছে, তা এখনই মনে করেন না তিনি। নিজের কথার পক্ষে প্রমাণও দিয়ে গেছেন দরুণ দক্ষতায়। ঘরোয়া পর্যায়ে করেছেন ঈর্ষা করার মতো পারফর্ম। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে গড়েছেন ৫০০-এর বেশি উইকেট নেয়ার গর্বের কীর্তি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো গুরুত্বপূর্ণ সফরের আগে তাই রাজ্জাককে আর অপাংক্তেয় ভাবার ঝুঁকি নেননি নির্বাচকরা। যদিও মূল স্কোয়াডে থাকতে হলে প্রাথমিক দলের অনুশীলন পর্বে রাজ্জাককে দেখাতে হবে নিজের সেরা দক্ষতা ও ফিটনেসের প্রমাণ।

পক্ষান্তরে ইয়াসিন আরাফাত সবেমাত্র পা ফেলেছেন ১৯ বছরে। অভিজ্ঞতা বলতে চারটি প্রথম শ্রেণির এবং পাঁচটি লিস্ট-এ ম্যাচ। এতেই নজর কেড়েছেন ছয় ফুট এক ইঞ্চি উচ্চতার এই পেসার। ফলে তাকে একটা সুযোগ দিতে দ্বিতীয়বার ভাবেননি নির্বাচকরা।

রাজ্জাক যদি হন বাংলাদেশ ক্রিকেট ঘিরে গড়ে উঠতে থাকা সুরম্য স্বপ্ন-প্রাসাদের ভিত, ইয়াসিন তবে সেই প্রাসাদের আরো উঁচু হওয়ার শক্তি। রাজ্জাকের শেষের শুরু আর ইয়াসিনের শুরুর সূচনা তো তাই বাড়তি আবেগ জাগাবেই!

প্রিয় পাঠক, ভিন্নমতে প্রকাশিত লেখার বিষয়বস্তু, রচনারীতি ও ভাবনার দায় একান্ত লেখকের। এ বিষয়ে টোয়েন্টিফোর লাইভ নিউজপেপার কোনোভাবে দায়বদ্ধ নয়। আপনাদের ধন্যবাদ।