আপনি পড়ছেন

বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর অন্তত চার হাজার কর্মী নেবে গ্রিস। এ নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে করা একটি চুক্তি বৃহস্পতিবার অনুমোদন দিয়েছে দেশটির পার্লামেন্ট। গত ফেব্রুয়ারিতে গ্রিসের অভিবাসনমন্ত্রী নতিস মিতারাচি ঢাকা সফরে এসে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ওই চুক্তি সই করেন। এছাড়া অনিবন্ধিতভাবে গ্রিসে বসবাস করা ১৫ হাজার বাংলাদেশিকে বৈধতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গ্রিস সরকার।

bangladesh passportবছরে ৪ হাজার বাংলাদেশি কর্মী নেবে গ্রিস

এথেন্সে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ আজ শুক্রবার (২২ জুলাই) এ সুখবর দিয়েছেন।

ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, গ্রিস রাজি হয়েছে দেশটিতে আমাদের যে ১৫ থেকে ১৮ হাজার অবৈধ অভিবাসী আছেন, তাদের বৈধতা দেওয়া হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, প্রতিবছর ৪ থেকে ৫ হাজার লোক নেবে গ্রিস। এটি প্রথম ইউরোপীয় দেশ, তারা যে রাজি হয়েছে, এটিই আমাদের জন্য ভালো।

গ্রিসের অভিবাসনমন্ত্রী নতিস মিতারাচি গত ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা সফরে আসেন। তখন বাংলাদেশ থেকে বছরে ৪ হাজার কর্মী নেওয়ার এবং অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা দেওয়ার বিষয়ে সমঝোতা স্মারক সই হয়। বৃহস্পতিবার গ্রিসের পার্লামেন্ট সেই চুক্তি অনুমোদন দিয়েছে।

এথেন্স দূতাবাস জানিয়েছে, গ্রিসে বর্তমানে ৩০ হাজার বাংলাদেশি বসবাস করছেন। এর মধ্যে ১২ হাজার দেশটিতে বৈধভাবে বসবাস করছেন। বাকিদের কাছে কোনো বৈধ কাগজপত্র নেই। তাদের মধ্যে ১৫ হাজার বাংলাদেশি সমঝোতা অনুযায়ী বৈধতা পাবেন।

রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ জানান, অবৈধরা কোনো প্রক্রিয়ায় বৈধ হবেন, কারা আওতায় আসবেন এবং কীভাবে আবেদন করতে হবে সেসব বিষয় এখন চূড়ান্ত করতে হবে। এই প্রক্রিয়ায় আমাদের মন্ত্রিসভারও অনুমোদন লাগবে।

সমঝোতা চুক্তি অনুযায়ী, বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর ৪ হাজার নতুন কর্মীকে গ্রিস কাজ করার সুযোগ দেবে। তাদের ৫ বছর মেয়াদি অস্থায়ী ’ওয়ার্ক পারমিট’ দেওয়া হবে। তাদের দেশটির কৃষি খাতে মৌসুমি শ্রমিক হিসেবে কাজে লাগানো হবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর