advertisement
আপনি পড়ছেন

অস্ট্রেলিয়ার সিনেট সদস্য হিসেবে শপথ নিতে গিয়ে প্রথামাফিক রাষ্ট্রপ্রধান ও ব্রিটিশ কমনওয়েলথের রাণী এলিজাবেথের প্রতি আনুগত্যের অঙ্গীকার করতে হয়। এ কাজটি করতে গিয়েই রাণী এলিজাবেথকে ‘উপনিবেশবাদী রাণী’ বলে অভিহিত করলেন আদিবাসী রাজনীতিক ও গ্রিন পার্টির প্রভাবশালী নেত্রী লিডিয়া থর্প।

australia lidia thorpe tlsd শপথ গ্রহণের সময় ব্ল্যাক পাওয়ার স্যালুট দেন অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর লিডিয়া থর্প

ভিক্টোরিয়া অঙ্গরাজ্য থেকে নির্বাচিত সিনেটর লিডিয়া থর্প সোমবার অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্ট ভবনে শপথ গ্রহণ করেন। এ সময় মার্কিন কৃষ্ণাঙ্গ অধিকার কর্মীদের কায়দায় ডান হাত মুষ্টিবদ্ধ রেখে ব্ল্যাক পাওয়ার স্যালুট দেন লিডিয়া।

ভীষণভাবে রাজনৈতিক ওই স্যালুট দেওয়ার পর নিতান্ত অনিচ্ছায় তিনি আনুষ্ঠানিক শপথ পাঠ শুরু করেন এভাবে- ‘আমি, স্বেচ্ছাধীন, লিডিয়া থর্প, কায়মনোবাক্যে ও আন্তরিকভাবে অঙ্গীকার ও ঘোষণা করছি যে আমি বিশ্বস্ত ও সত্যিকারের অনুগত থাকব উপনিবেশবাদী মহামান্য রাণী এলিজাবেথের প্রতি।’

নির্ধারিত শপথবাক্যের বাইরে সিনেটরের মুখে ‘উপনিবেশবাদী রাণী’ শব্দটি শোনামাত্রই সিনেটকক্ষে রোল পড়ে যায়। এ অবস্থায় সিনেট সভাপতি সু লাইনস আবারও শপথ পাঠের অনুরোধ জানিয়ে লিডিয়াকে বলেন, ‘সিনেটর, আপনাকে কেবলমাত্র কাগজে লেখা শব্দগুলো শপথ হিসেবে পাঠ করতে হবে।’ শেষপর্যন্ত দ্বিতীয়বারের মতো শপথ পাঠে বাধ্য হন লিডিয়া থর্প।

পরবর্তীতে সামাজিক মাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে নিজের শপথ পাঠরত অবস্থার ছবি সংযুক্ত করে লিডিয়া থর্প লেখেন- ‘সার্বভৌমত্বের অবসান হয়নি কখনো।’ তার এ মন্তব্য সমর্থন করে গ্রিনস পার্টি নেতা অ্যাডাম ব্রান্ডট টুইটারে লেখেন- ‘(সার্বভৌমত্ব) সবসময় ছিল, সবসময় থাকবে।’

বরাবরই অস্ট্রেলিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে ও ব্রিটিশ উপনিবেশবাদের বিরুদ্ধে উচ্চকন্ঠ লিডিয়া থর্প। বিভিন্ন সময়ে তিনি বলেছেন যে, উপনিবেশের হাত ধরে আসা অস্ট্রেলিয়ার বিদ্যমান জাতীয় পতাকা বঞ্চনা, নিপীড়ন ও গণহত্যার প্রতিনিধিত্ব করে।

এর আগে জুন মাসে এবিসি রেডিওকে তিনি বলেন, উপনিবেশবাদীরা (ব্রিটেন) এখানে এসে আমাদের মানুষের ওপর গণহত্যা চালিয়ে উপনিবেশ প্রতিষ্ঠা করেছে। আমি এটা কোনোভাবেই মানতে পারি না। এই পতাকা অসংখ্য মানুষের দুঃসহ যন্ত্রণার স্মৃতি বহন করে। আমি সে মানুষদেরই প্রতিনিধিত্ব করছি।

ব্রিটেনের রাণীর প্রতি আনুগত্যের শপথ নেওয়ার রেওয়াজের সমালোচনা করে গত সপ্তাহে লিডিয়া থর্প টুইটারে লেখেন- এখন ২০২২ সাল চলছে। আমরা এখনও অন্য একটি দেশের রাণীর প্রতি আনুগত্যের শপথ নিচ্ছি।