advertisement
আপনি পড়ছেন

উভয় হাঁটুতে অস্ত্রোপচারের পর অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছেন শোয়েব আখতার। তবে ব্যথা এখনও কমেনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া বার্তায় সমর্থকদের কাছে দোয়া চেয়েছেন ক্রিকেট বিশ্লেষক এবং পাকিস্তানের সাবেক এই তারকা পেসার।

shoaib akhtar painমেলবোর্নের একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন শোয়েব

শুধু ক্যারিয়ার চলাকালীনই নয়, অবসর নেওয়ার পরও চোটের সাথে লড়াই করতে হয় পেসারদের। শোয়েবও এর ব্যতিক্রম নন। দীর্ঘদিন আগে ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও এখন পর্যন্ত পুরোনো ইনজুরি তাড়া করে বেড়ায় রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসকে। এজন্য প্রায়ই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হয় তাকে।

সম্প্রতি পরিস্থিতি গুরুতর আকার ধারণ করায় অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নের একটি হাসপাতালে হাঁটুর অস্ত্রোপচার করিয়েছেন শোয়েব। সাবেক পেসারের হাসপাতালের বেডে শুয়ে থাকার বেশকিছু ছবি ইতোমধ্যে প্রকাশ হয়েছে নেট দুনিয়ায়।

ইনস্টাগ্রামে আপলোড করা একটি ভিডিওতে শোয়েব বলেন, ‘আলহামদুল্লিাহ, ভালোভাবেই সার্জারি সম্পন্ন হয়েছে। রিকভারি হতে কিছু সময় লাগবে। আপনাদের সবার দোয়া প্রার্থনা করছি। আমার সত্যিকারের বন্ধু কামিল খানকে আলাদাভাবে ধন্যবাদ জানাতে চাই। সে মেলবোর্নে আমার দেখাশোনা করে যাচ্ছেন।’

শোয়েব আখতার একবার গণমাধ্যমকে বলেছিলেন যে, অবসর নেওয়ার ১১ বছর পরেও তিনি ব্যথায় ভুগছেন। তিনি বলেন, আরও চার থেকে পাঁচ বছর খেলতে পারতেন। তবে এটা করলে অবস্থা এতটাই খারাপ হতো যে তাকে ক্যারিয়ার শেষে বাকিটা জীবন হুইলচেয়ারে কাটাতে হতো। তাই এক রকম বাধ্য হয়েই বাইশ গজ থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেন শোয়েব।

অস্ত্রোপচারের আগে একটি ভিডিও বার্তায় শোয়েব বলেছিলেন, তিনি এর আগেও পাঁচবার হাঁটুর অস্ত্রোপচারের প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে গিয়েছিলেন। এরপরও মন খারাপ হয়নি তার। কারণ একজন ফাস্ট বোলার হিসেবে পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করতে পারাই অনেক বড় কিছু ছিল শোয়েবের কাছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর