advertisement
আপনি পড়ছেন

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকোর আলবুকার্ক শহরে গত নয় মাসে ৪ মুসলিমকে হত্যা করা হয়েছে। হত্যায় জড়িত সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে গতকাল মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করা হয়, যিনি দুটি হত্যায় জড়িত রয়েছেন। অপর দুই হত্যাকাণ্ডেও তার হাত থাকতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি হলেন ৫১ বছর বয়সী মুহাম্মদ সৈয়দ। তার গ্রেপ্তারের খবরে মুসলিম জনপদে স্বস্তি নেমে এসেছে। খবর টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

usa policeমুসলিম হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে ব্রিফ করছেন যুক্তরাষ্ট্র পুলিশের এক কর্মকর্তা

নিউ মেক্সিকো ইসলামিক সেন্টার কিংবা আলবুকার্কের বৃহত্তম মসজিদ কর্তৃপক্ষ এ নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে। নিহত ৪ ব্যক্তি হলেন- নাঈম হুসেন, আফজাল হুসেন, আফতাব হোসেন ও মোহাম্মদ আহমাদি।

হত্যাকাণ্ডের শিকার ব্যক্তিরা সবাই দক্ষিণ এশীয় মুসলিম পুরুষ। এসব হত্যাকাণ্ড আলবুকার্ক শহরে বসবাসকারী মুসলিম সম্প্রদায়কে আতঙ্কের মধ্যে ফেলে দিয়েছে। আলবুকার্কের পুলিশ প্রধান হ্যারল্ড মেডিনা টুইট করেছেন, পুলিশ তাদের খুনের তদন্তে একটি গাড়ির সন্ধান করছিল। মুহাম্মদ সৈয়দ সেই গাড়ির চালক। তিনি হত্যাকাণ্ডের প্রাথমিক সন্দেহভাজন ব্যক্তি।

গত শুক্রবার রাতে সর্বশেষ মুহাম্মদ আফজাল হুসেনকে ‘অ্যামবুশ স্টাইলে’ গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল। এর পর থেকে আলবুকার্ক শহর এবং রাজ্য কর্তৃপক্ষ নামাজের সময় মসজিদে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে। পুলিশ হত্যাকাণ্ডগুলোর তদন্তে নেমেছে। আলবুকার্ক শহরের ৫ লাখ ৬৫ হাজার জনসংখ্যার মধ্যে ৫ হাজার মুসলমান।

খবরে বলা হচ্ছে, যাদের হত্যা করা হয়েছে তারা সবাই পাকিস্তানি বা আফগান বংশোদ্ভূত পুরুষ। অ্যামবুশ স্টাইলে গুলি করে হত্যার বিষয়টি আলবুকার্কের মুসলিম সম্প্রদায়কে আতঙ্কিত করেছে। ভয়ে অনেক পরিবার তাদের বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না এবং নিউ মেক্সিকো বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু পাকিস্তানি ছাত্র ভয়ে শহর ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে।

হত্যাকাণ্ডের প্রথম ঘটনা ঘটে গত নভেম্বরে। পরে দুই সপ্তাহের মধ্যে আরও তিনজনকে হত্যা করা হয়। নিহতদের মধ্যে সর্বশেষ ব্যক্তি একজন নগর পরিকল্পনা পরিচালক মুহাম্মদ আফজাল হুসেন। তার ভাই ইমতিয়াজ হুসেন বলেন, সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের খবরটি আমাদের আশ্বস্ত করেছে। আমার বাচ্চারা আমাকে জিজ্ঞেস করেছিল, আমরা কি এখন আমাদের বারান্দায় বসতে কিংবা বাইরে গিয়ে খেলতে যেতে পারি? আমি তাদের অনুমতি দিয়েছি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর