অবশেষে ইংল্যান্ডের ইনিংস থামলো ২৪৪ রানে। ততোক্ষণে অবশ্য বাংলাদেশ দলের চেয়ে ২৪ রানে এগিয়ে গেছে ইংলিশরা। দিনের শুরুতে অবশ্য এমনটা মনে হচ্ছিলো না। একসময় তো মনে হচ্ছিলো, অল্প রানের পুঁজি নিয়ে বাংলাদেশই বুঝি লিড পেয়ে যাবে।

england lead by 24 runs

দিনের ফার্স্ট সেশনেই দুটো উইকেট পড়ে যাওয়ায় বেশ চাপেই পড়ে যায় সফরকারীরা। ৬৯ রানেই পাঁচ উইকেট নেই ইংল্যান্ডের। তখনও অবশ্য ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপে টেক্কা খেলার মতো যথেষ্ট তাস অবশিষ্ট ছিলো। তবে সেখান থেকে যখন ১৪৪ রানে আট উইকেট হারিয়ে বসলো ইংল্যান্ড, তখন বাংলাদেশের লিড পাওয়াটা সময়ের ব্যাপার মনে হচ্ছিলো।

কিন্তু দাবার ঘুঁটিটা উল্টে দিলেন ক্রিস ওকস এবং আদিল রশিদ। নবম উইকেট জুটিতে ৯৯ রানের বেদনাদায়ক পার্টনারশিপ বাংলাদেশকে ম্যাচের চালকের আসন থেকে নামিয়ে একেবারে পিছনে বসিয়ে দিলো।

দিনের উইকেট পতনের শুরুটা হয়েছিলো মঈন আলীকে দিয়ে। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে ব্যক্তিগত দশ রানে সাজঘরে ফিরে যান বাংলাদেশের এ ‘জামাই’।

এরপর মঞ্চে আসলেন তাইজুল ইসলাম। বেন স্টোকসকে শূন্য রানে ফেরত পাঠিয়ে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তির একটা পরশ বুলিয়ে দিলেন তিনি। ঠিক এই সময়টায় ২২০ রানের আগেই ইংল্যান্ডকে অলআউট করে দেয়ার স্বপ্নটা গভীর কোণ থেকে মনের সদর রাস্তায় উঁকি-ঝুঁকি মারতে শুরু করলো।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে রুট ও জনি বেয়ারস্টোর চেষ্টায় একটু ঘুরে দাঁড়াতে চেষ্টা করেছিলো ইংল্যান্ড। দুজনে মিলে ৪৫ রান যোগ করে দলকে নিয়ে গেলেন ১১৪ রানে। এরমধ্যে অবশ্য ব্যক্তিগত ১৯ রানে মাহমুদউল্লাহর হাতে নতুন জীবন পেলেন রুট। তবে ভাগ্য সুপ্রসন্ন ছিলো না রুটের। তাইজুলের এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে পড়ে ব্যক্তিগত ৫৬ রানে মাঠের বাইরে যান তিনি। এর আগেই সাজঘরে ফিরে যান বেয়ারস্টো। ততোক্ষণে আট উইকেটে ১৪৪ ইংল্যান্ড।

তারপরই দুঃস্বপ্নের শুরু। ক্রিস ওকস এবং আদিল রশিদ হাল ধরলেন দলের। দুজনে মিলে ৯৯টা মূল্যবান রান যোগ করে বাংলাদেশের প্রতীক্ষা ক্রমশ বাড়িয়ে তুলছিলেন। এরইমধ্যে ২২০ পেরিয়ে লিড নিয়েছে সফরকারীরা। দলীয় ২৪৩ রানে ক্রিস ওকস যখন বিদায় নিচ্ছেন তখন তার ঝুলিতে ৪৬ রান জমা পড়েছে। এক রান পরেই সাজঘরে ফেরেন দশম উইকেটে মাঠে আসা স্টিভেন ফিন। অপরপাশে ব্যক্তিগত ৪৪ রানে অপরাজিত ছিলেন আদিল রশিদ।

বাংলাদেশের পক্ষে মেহেদি হাসান মিরাজ ছয় উইকেট নিয়েছেন। বাকি চার উইকেটের মধ্যে তাইজুল ৩টি এবং সাকিব আল হাসান একটি উইকেট নেন।

আপনি আরও পড়তে পারেন

বাংলার মায়াবী স্পিনে টালমাটাল ইংল্যান্ড

তামিম: আমি ভুল করেছি

গ্যালারিতে কাঁদলেন মুশফিকের মা

রাজধানীতে বৃষ্টি নামার আগেই মিরপুরে উইকেট বৃষ্টি

সেঞ্চুরির পর তামিম, এরপর আউট হলেন মমিনুলও

Stay on top of the latest sports news, including cricket and football, from around the world. Get comprehensive coverage of matches, tournaments, and leagues— along with expert analysis and commentary from our team of sports journalists. Whether you're a die-hard fan or a casual observer, you'll find everything you need to know about your favorite sports here.

Sports, cricket, and football are popular topics in the world of sports. Cricket is a bat-and-ball game played between two teams of eleven players and is particularly popular in South Asian countries. Football, also known as soccer, is a team sport played with a spherical ball between two teams of eleven players and is widely popular worldwide. Sports enthusiasts follow the latest news, matches, tournaments, and leagues in these sports and analyze and comment on the performances of players and teams.