আপনি পড়ছেন

গত বছরের সেপ্টেম্বরে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে মাঠে নেমেছিল আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিল। পাঁচ মিনিট চলার পর করোনা ইস্যুতে স্থগিত হয়ে যায় ম্যাচটি। এখন আর সেই ম্যাচ খেলতে চাইছে না কোনো দল। দুই দলের চাওয়াকে সম্মান জানিয়ে ম্যাচটি বাতিল করতে যাচ্ছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা, ফিফা। প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে ব্রাজিলিয়ান প্রচারমাধ্যম গ্লোবো।

argentina brazil clash 4সেই ম্যাচে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছিল

গত ৫ সেপ্টেম্বর আলোচিত সেই ম্যাচে নিজেদের মাঠে আর্জেন্টিনাকে আতিথেয়তা দিয়েছিল ব্রাজিল। গোল বাঁধে করোনা প্রটোকল নিয়ে। সফরকারী দলের চার খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে আইসোলেশন না মানার অভিযোগ আনেন ব্রাজিলের জাতীয় স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণ এজেন্সি, আনভিসা। এমনকি মাঠে নেমে ওই চার খেলোয়াড়কে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করেন সংস্থাটির কর্মকর্তারা। এই ঘটনায় হাতাহাতির সৃষ্টি হয়। উপায়ান্তর না দেখে ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত স্থগিত করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

স্থগিত হওয়া ম্যাচটি পুনরায় মাঠে গড়ানোর জন্য দফায় দফায় আলোচনা হয়েছে। কিছুদিন আগে ফিফা জানিয়ে দিয়েছে আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ম্যাচটি শেষ করতে। এরপর চোট এবং বিভিন্ন বিষয় চিন্তা করতে ম্যাচটি বাতিলের জন্য আদালতের দ্বারস্থ হয় আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন, এএফএ। এবার একই পথে হেঁটেছে ব্রাজিল ফুটবল কনফেডারেশন, সিবিএফ।

fifa logo 2ফিফা

আগামী ২১ নভেম্বর কাতারের মাটিতে বসবে এবারের ফুটবল বিশ্বকাপ। গ্লোবোর দাবি, আসন্ন বিশ্বমঞ্চে ফুল ফিট স্কোয়াড পেতে ব্রাজিলের হেড কোচ তিতে বাছাইপর্বের ম্যাচটি খেলতে চান না। কোচের এই অনুরোধ রাখতে কাজ করে যাচ্ছেন সিবিএফের সভাপতি এদরানদো রদ্রিগেজ।

বিবৃতিতে রদ্রিগেজ বলেন, ‘আমাদের কোচিং স্টাফ ম্যাচটি খেলার পক্ষে নয়। এজন্য আমরা ফিফার কাছে অনুরোধ করবো যেন ম্যাচটা আয়োজন না করা হয়। কোচিং স্টাফদের সাহায্যের জন্য আমরা সম্ভাব্য সবকিছুই করবো। আমাদের প্রধান লক্ষ্য হলো কাতার বিশ্বকাপ জেতা। বাছাইপর্বের ম্যাচটা যেন না হয় এজন্য সেরা চেষ্টাই করবো।’

উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে ল্যাটিন আমেরিকা থেকে চারদল বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করেছে। তাই পয়েন্ট টেবিলে বাছাইপর্বের ম্যাচটা কোনো প্রভাবই ফেলবে না।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর